এ্যারন ফিঞ্চ , ছবিঃ সংগৃহীত।

আর্থিক ক্ষতি ভুলে সংহতির ডাক দিলেন এ্যারন ফিঞ্চ

কোভিড-১৯ এর সংক্রমনে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল) এবং ঘরোয়া ক্রিকেটে থেমে যাওয়ায় আর্থিক যে ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে ‘পরিস্থিতির কারণে তা মেনে নিয়ে’ অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে অধিনায়ক এ্যারন ফিঞ্চ বলেছেন ‘এই মুহুর্তে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।’

অস্ট্রেলিয় ক্রিকেট বোর্ড ইতোমধ্যে আইপিএলে অংশগ্রহনের জন্য খেলোয়াড়দের ছাড়পত্র (এনওসি) প্রদানের বিষয়টি পর্যালোচনা করবে জানিয়েছে। এরপর দেশটির সরকার তাদের ভ্রমনের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। ফলে হুমকিতে পড়েছে তাদের ভারতীয় টি-২০ লীগে অংশগ্রহন। ইতোমধ্যে অবশ্য পিছিয়ে গেছে আইপিএল শুরুর তারিখ। ২৯ মার্চ টুর্নামেন্টটি শুরুর কথা থাকলেও পিছিয়ে দিয়ে ১৫ এপ্রিল শুরুর তারিখ নির্ধারণ করেছে তারা।

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

রেডিও এসইএন’কে দেয়া সাক্ষাৎকাওে ফিঞ্চ বলেন,‘ আপনি অর্থ আয়ের জন্য যেতে চাইলে ঝুঁকিতে পড়তে পারেন। সংস্থা যখন কিছু একটা চায় তখন আমাদের তা মেনে নেয়া উচিৎ । তবে এখন আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। আমি নিশ্চিত এক পর্যায়ে সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে। তবে কখন হবে সেটি বলা কঠিন।’

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন ঘোষণা দিয়েছেন,‘ বিদেশ সফরে যাবেন না।’ কারণ কখন কোথায় করোনারভাইরাস লুকিয়ে আছে তা কেউ জানে না।

এই মুহুর্তে অস্ট্রেলিয়ার কমপক্ষে ১৭ ক্রিকেটার আইপিএলের লোভনীয় চুক্তিতে রয়েছে। মাঠের বাইরেও আছেন বেশ ক’জন। চলতি বছরের শেষভাগে ভারতের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে টেস্ট সিরিজ খেলারও কথা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার। পুরুষদের টি-২০ বিশ্বকাপেরও আয়োজক অস্ট্রেলিয়া।

আইপিএলে ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরে যোগ দেয়ার কথা ছিল ফিঞ্চের। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে তার কিছুই করার নেই। অসি অধিনায়ক বলেন,‘ এমন পরিস্থিতি আমরা কখনো দেখিনি। ভ্রমন নিষেধাজ্ঞা সবকিছুই পাল্টে দিয়েছে। এটি পরিবর্তনের জন্য দুই সপ্তাহও লাগতে পারে, আবার তিন সপ্তাহও লাগতে পারে। এমন অবস্থায় কোন পরিকল্পনা করা কঠিন। তবে এই মুহুর্তে নিজেকে নিরাপদ রাখাটাই জরুরি হয়ে পড়েছে। ভাইরাসের বিস্তার রোধে আপনাকে যথাসাধ্য সব ধরনের চেস্টাই করতে হবে।’

এবারের আইপিএলে সর্বোচ্চ মুল্যে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন অসি পেসার প্যাট কামিন্স। নিলামে আকর্ষনীয় বেতনে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলও।

এছাড়া দিল্লি ডেয়ার ডেভিলসের প্রধান কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন সাবেক অসি অধিনায়ক রিকি পন্টিং। পুরুষ দলের বর্তমান সহকারী কোচ এন্ড্রু ম্যাকডোনাল্ড পেয়েছেন রাজস্থান রয়্যালসের দায়িত্ব।

এছাড়া সাবেক টেস্ট ব্যাটসম্যান সাইমন ক্যাটিচ কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের কোচের দায়িত্ব লাভ করেছেন। যেখানে তার সহকারীর দায়িত্ব পেয়েছেন এ্যাডাম গ্রিফিথ।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *