শামীম পাটোয়ারী , ছবিঃসংগৃহীত।

এশিয়া কাপের ফাইনালের পরাজয় লজ্জাস্কর : শামিম

ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ : এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) আয়োজিত অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের কাছে দু:খজনক পরাজয়ের পর আজ দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ যুব ক্রিকেট দল। ফাইনালে মানসিক চাপ সংবরণ করতে ব্যর্থ হয়ে ওই পরাজয়কে দু:খজনক বলে উল্লেখ করেছে দলটি।

শ্রীলংকায় অনুষ্ঠিত ফাইনালে গতকাল শনিবার মাত্র ৩২.৪ ওভারে ভারতকে ১০৬ রানে অল আউট করে দেয়ায় আশা করা হচ্ছিল আসরের নক আউট পর্বে ধারাবাহিক পরাজয়ের ধারা থেকে বেরিয়ে আসবে জুনিয়র টাইগাররা। কিন্তু ফাইনালে জয়ের দ্বারপ্রান্তে গিয়ে ব্যর্থতা নিয়েই দেশে ফিরেছে তারা। বাঁ হাতি স্পিনার অথর্ব আনকোলেকারের স্পিন বিষে জর্জরিত হয়ে ৩৩ ওভারে ১০১ রানেই অল আউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। আনকোলেকার ২৮ রান দিয়ে তুলে নেন ৫টি উইকেট।

এর আগে ইংল্যান্ডেও ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে এই ভারতীয় যুবাদের কাছে পরাজিত হয়েছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। অথচ স্বাগতিকদের টপকে ফাইনালে গিয়ে ছিল যুব টাইগাররা।

আজ মিরপুরের বিসিবি একাডেমী প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যান শামিম পাটওয়ারি বলেন, ‘এই হারের বর্ণনা আমরা দিতে পারব না। ভারতের বিপক্ষে আমরা সব সময় জয়ের ম্যাচগুলোতেই হার মানছি। এটি একটি লজ্জার ব্যাপার। এটি হতে পারে মানসিক বাঁধা। আমরা যখন ফাইনালে খেলতে যাই তখন মনে হয় মস্তিষ্কে সেটি কাজ করে।’

এই স্বল্প ব্যবধানের জয় ভারতকে পৌঁছে দিয়েছে নতুন রেকর্ডে। এই নিয়ে অনুর্ধ -১৯ এশিয়া কাপে রেকর্ড সপ্তম শিরোপা জয় করল ভারত। ১৯৮৯ সালে এই টুর্নামেন্ট প্রবর্তনের পর ভারত শুধুমাত্র একটি ফাইনালে খেলতে পারেনি। ফাইনালেও তারা কখনো পরাজিত হয়নি। ২০১২ সালের একটি ফাইনাল টাই হওয়ায় যৌথ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয় দুই ফাইনালিস্ট ভারত ও পাকিস্তানকে। আর ২০১৭ সালের ফাইনালে পাকিস্তানকে হারিয়ে শিরোপা জয় করেছিল আফগানিস্তান।

পাটওয়ারি বলেন, বোলারদের অসাধারণ দক্ষতা প্রদর্শনের পরও ফাইনালে জয়ের সুযোগ হাতছাড়া করাটা সত্যিই হতাশার ব্যাপার। তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করেছিলাম ভাল কিছু একটা করতে পারব। ম্যাচটি ভালভাবে শেষ করতে পারব। তবে শেষ পর্যন্ত সেটি হয়নি। আমরা গেম পরিকল্পনা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে পারিনি। আমি চেষ্টা করেছি। কিন্তু সম্ভব হয়নি। দুর্ভাগ্য বশত ব্যাট হাতে আমি দলকে কিছুই দিতে পারিনি।

আমাদের বোলাররা সত্যি ভাল বল করেছে। সব বিভাগেই আমরা ভাল অবস্থায় ছিলাম। সব কিছুই ঠিক ছিল।’

এসময় পাটওয়ারি অবশ্য দু’টি এলবিডব্লিউর সিদ্ধান্তের দিকে ইঙ্গিত করে আরো বলেন, আম্পায়ারদের সিদ্ধান্তগুলোও দলের বিপক্ষে গিয়েছে। যা তাদের সুযোগ আরো বেশি নষ্ট করে দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আপনারা সবই দেখেছেন। আমার মনে হয় এ বিষয়ে আমাদের চেয়েও বেশি জানেন। আমাদের বিপক্ষেই কেন ভুল সিদ্ধান্ত হল। ভারতের বিপক্ষে আমরা যখনই খেলতে যাই তখনই একটি বা দু’টি ভুল সিদ্ধান্ত আমাদের বিপক্ষে দেয়া হয়। যা আমাদের খেলাকেই নষ্ট করে দেয়।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *