ছবিঃবাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল )

করোনার কারনে এ বছর বিপিএল হচ্ছে না

করোনাভাইরাসের কারনে এ বছর জনপ্রিয় ইভেন্ট বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সম্ভাবনা নেই বলে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানান, আর্থিক-সমৃদ্ধ এই টুর্নামেন্টটি চলতি বছরের নভেম্বর-ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল। কিন্তু কোভিড-১৯ মহামারীর কারনে বিশ্ব এখন কঠিন সময় পার করছে। তাই বিপিএল আয়োজন করার কোন উপায় নেই।

পাপন বলেন, ‘বিপিএল আয়োজন করতে আমাদের এখানে বিদেশী খেলোয়াড় আনতে হবে, এই পরিস্থিতিতে এটি সম্ভব নয়।’
তিনি আরও বলেন, ‘একই সাথে, আমাদের আরও ভাল ব্যবস্থা নিশ্চিত করা দরকার, যা কোভিড-১৯ এর কারনে সম্ভব নয়। যদি আমরা এগুলো পরিচালনা করতে পারি তবে বিপিএল আয়োজন করতে কোন সমস্যা হবে না। তবে এখানে এই ব্যাপারগুলো সবচেয়ে বড়। তাই এ বছর আমাদের নজরে বিপিএল নেই।’

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ দিয়ে ইতোমধ্যে ক্রিকেটকে মাঠে ফিরিয়েছে বিসিবি। তিন দলকে নিয়ে ৫০ ওভারে ক্রিকেট আয়োজন করেছে। টুর্নামেন্টটি আয়োজন করতে, তিন দলের খেলোয়াড়দের জন্য জৈব-সুরক্ষা পরিবেশ তৈরি করেছে তারা।

পাপনের মতে, অনেক সমস্যার কারণে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের দল পরিচালোনার জন্য জৈব-সুরক্ষা পরিবেশ তৈরি করা সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, ‘ আমি মনে করি না কোভিড-১৯ এর কারনে বিপিএলের মতো কোনও আসর আয়োজন করা বাংলাদেশের জন্য সহজ হবে। এখানে বেশিরভাগ ফ্র্যাঞ্চাইজি বিপিএলের একটি দল চালানোর জন্য অনেক সমস্যা মোকাবেলা করে। আর ইংল্যান্ড এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের (আইপিএলের জন্য) যে জৈব-সুরক্ষা পরিবেশ স্থাপন করা হয়েছে তা বাংলাদেশে সম্ভব নয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি না, আমাদের দেশে দলগুলোর জন্য জৈব-সুরক্ষা পরিবেশ তৈরি করার জন্য আমাদের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলির পক্ষে এত বেশি অর্থ ব্যয় করা সম্ভব।’

আইপিএলের মতো সংযুক্ত আরব আমিরাতে বা দেশের বাইরে বিপিএল আয়োজন করার কোন উপায় রয়েছে কি-না প্রশ্নের জবাবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সেক্রেটারি আই এইচ মল্লিক জানান, এটি বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সমাধান নয়।

তিনি বলেন, ‘এটি আমাদের প্রেক্ষাপটে কোন ব্যবহারিক সমাধান নয়। আমাদের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো আরব আমিরাতের মত দেশের বাইরে গিয়ে দল চালানোর জন্য আর্থিকভাবে এতটা শক্তপোক্ত নয়।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *