সানরাইজ হায়দ্রাবাদ, ছবিঃসংগৃহীত।

কোহলিদের বিদায় করে দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ারে হায়দারাবাদ

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটের ত্রয়োদশ আসর থেকে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে বিদায় করে দিয়েছে সানরাইজার্স হায়দারাবাদ।

গতরাতে টুর্নামেন্টের এলিমিনেটর ম্যাচে হায়দারাবাদ ৬ উইকেটে হারিয়েছে ব্যাঙ্গালুরুকে। এই জয়ে দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ারে খেলবে হায়দারাবাদ। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ প্রথম কোয়ালিফাইয়ারে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের কাছে হারা দিল্লি ক্যাপিটালস। আগামীকাল দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ারে লড়বে দিল্লি ও হায়দারাবাদ।

আবু ধাবিতে টস জিতে প্রথমে বোলিং করতে নামে হায়দারাবাদ। ওপেনার হিসেবে নেমেছিলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ৬ রানের বেশি করতে পারেননি। আরেক ওপেনার দেবদূত পাডিকালও ১ রানে ফিরেন। ফলে ১৫ রানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে ব্যাঙ্গালুরু। কোহলি-পাডিকালকে শিকার করেন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান পেসার জেসন হোল্ডার।

এ অবস্থা থেকে দলকে লড়াইয়ে ফেরানোর পথে ছিলেন দুই বিদেশী অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ফিঞ্চ ও দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স। তৃতীয় উইকেটে ৪১ রান যোগ করেন তারা।

ফিঞ্চ ৩২ রানে থামলেও, দলের ভরসা হিসেবে টিকে ছিলেন ডি ভিলিয়ার্স। পরের দিকের ব্যাটসম্যানদের সহায়তায় দলকে লড়াই করার পুঁজি এনে দেয়ার লক্ষ্য ছিলো ডি ভিলিয়ার্সের। কিন্তু পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা ডি ভিলিয়ার্সকে সঙ্গ দিতে পারেননি। ফলে নিজের বিধ্বংসী রুপ দেখানোর সাহসও পাননি ডি ভিলিয়ার্স। তারপরও ১৮তম ওভার পর্যন্ত উইকেটে ছিলেন তিনি। হাফ-সেঞ্চুরির ইনিংস খেলে ৫৬ রানে বিদায় নেন ডি ভিলিয়ার্স। তার ৪৩ বলের ইনিংসে ৫টি চার ছিলো।

ডি ভিলিয়ার্সের হাফ-সেঞ্চুরিতেই ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৩১ রান পর্যন্ত যেতে পারে ব্যাঙ্গালুরু। হায়দারাবাদের হোল্ডার ২৫ রানে ৩টি উইকেট নেন।

হায়দারাবাদকে ১৩২ রানের সহজ টার্গেট দিয়ে প্রথম ওভারেই উইকেট তুলে নেন ব্যাঙ্গালুরুর পেসার মোহাম্মদ সিরাজ। উইকেটরক্ষক শ্রীবৎ গোস্বামীকে খালি হাতে বিদায় দেন সিরাজ। ইনজুরির কারনে এ ম্যাচে খেলতে পারেননি হায়দারাবাদের প্রধান উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা।

ম্যাচের ষষ্ঠ ওভারে হায়দারাবাদের অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নারকে ১৭ রানে তুলে নেন সিরাজ। এতে ৪৩ রানে ২ উইকেট হারায় হায়দারাবাদ। এরপর দলীয় ৬৭ রানের হায়দারাবাদের আরও দু’টি উইকেট তুলে নেন ব্যাঙ্গালুরুর দুই স্পিনার অস্ট্রেলিয়ার এডাম জাম্পা ও যুজবেন্দ্রা চাহাল। মনিষ পান্ডিয়া ২৪ ও প্রিয়ম গর্গ ৭ রান করেন।

হায়দারাবাদের ৪ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফেরার স্বপ্ন দেখছিলো ব্যাঙ্গালুরু। কিন্তু ব্যাঙ্গালুরুর পথের কাটা হয়ে দাড়ান নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন ও হোল্ডার। পঞ্চম উইকেটে ৪৭ বলে অবিচ্ছিন্ন ৬৫ রান যোগ করে ২ বল হাতে রেখে হায়দারাবাদের মুখে হাসি ফোটান তারা।

২টি করে চার-ছক্কায় ৪৪ বলে অপরাজিত ৫০ রান করেন উইলিয়ামসন। ৩টি চারে অপরাজিত ২৪ রান করেন হোল্ডার। ম্যাচ সেরা হন উইলিয়ামসন।

 

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *