ছবি: ইংল্যান্ড বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ক্রিকেটকে পুর্নজন্ম দিতে ইংল্যান্ডে পৌছালো ওয়েস্ট ইন্ডিজ

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কারনে গেল মার্চ থেকে বিশ্ব ক্রিকেট থমকে আছে। এখনো করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব অব্যাহত আছে। কিন্তু এর মধ্যেই ক্রিকেটকে পুর্নজন্ম দেয়ার সিদ্বান্ত নেয় ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের সূচি চূড়ান্ত করে ইসিবি।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ

যা শুরু হবে আগামী ৮ জুলাই। টেস্ট সিরিজ খেলতে আজই ইংল্যান্ডে পৌঁছেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। আর এটি ক্রিকেটের জন্য বিশাল এক পদক্ষেপ বলে অভিহিত করলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।

এফটিপি অনুযায়ী ইংল্যান্ডওয়েস্ট ইন্ডিজের এই ক্রিকেট সিরিজটি এ মাসেই শুরুর সূচি ছিলো। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারনে এক মাস সিরিজটি পিছিয়ে যায়।

এক মাস পিছিয়ে গেলেও ক্রিকেটকে পুনরায় মাঠে ফেরানোর উদ্যোগকে বড় অর্জন বলেই মনে করছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। ইংল্যান্ডে পৌঁছে সংবাদমাধ্যমকে হোল্ডার বলেন, ‘এটি ক্রিকেটের জন্য বিশাল এক পদক্ষেপ এবং খেলাধুলার জন্য সাধারনভাবে আমরা এই সিরিজের জন্য ইংল্যান্ড ভ্রমন করছি। ক্রিকেটে নতুন পর্ব শুরুর জন্য সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ওভাল, এডজবাস্টন ও লর্ডসের দর্শকদের ভিড়ের পরিবর্তে এজ বোল ও ওল্ড ট্রাফোর্ডে বায়ো-সুরক্ষিত পরিবেশে রুদ্ধদার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের ম্যাচগুলো।

খেলোয়াড়দের সুরক্ষার জন্য টেস্টের জন্য এমন ভেন্যু ঠিক করা হয়েছে, যার সাথে হোটেল ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা থাকছে।

৮ জুলাই সাউদাম্পটনে অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। পরের দুই টেস্ট ১৬ ও ২৪ জুলাই হবে ম্যাচ ওল্ড ট্রার্ফোডে। সব টেস্টই হবে রুদ্ধদার স্টেডিয়াম ও জীবাণুমুক্ত পরিবেশে।

গতকাল ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দেশ ছাড়ার আগে করোনা পরীক্ষা দিতে হয়েছে সফরের থাকা দলের সকল খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাকে। বাধ্যতামূলক করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ ফল নিয়ে ইংল্যান্ডের বিমান ধরেন খেলোয়াড় ও কর্মকর্তারা। চার্টার বিমানে করে একসাথে ইংল্যান্ডের ম্যানচেষ্টারে পৌছায় ক্যারিবীয়রা।

দীর্ঘ তিন মাস পর আবারো ক্রিকেটকে মাঠে দেখতে পাবেন ভক্ত-সমর্থকরা। তবে ঘরে বসে টিভিতেই খেলা দেখতে হবে তাদের।

যেভাবেই হোক না কেন, ক্রিকেট মাঠে ফেরাকে অনেক বড় বিষয় বলে মনে করছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট। তিনি বলেন, ‘বর্তমান অবস্থাটি অত্যন্ত ভীতিজনক, তবে আমি মনে করি, আবারো ক্রিকেট দেখতে পেরে পুরো বিশ্ব কৃতজ্ঞ হবে।’

সম্প্রতি ইসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়, এবারের গ্রীষ্মে যদি কোন খেলা না হয়, তবে ২৫২ পাউন্ড ক্ষতি হতে পারে বোর্ডের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের খেলোয়াড় ও কর্মীদের ৫০ শতাংশ করে বেতন কর্তন করা হয়েছে। তারপরও ইংল্যান্ডের মত ধনী ক্রিকেট বোর্ডকে সহায়তায় কার্পন্য করেনি দরিদ্রতম বোর্ডগুলোর মধ্যে অন্যতম ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট ।

গেল বছর দেশের মাটিতে উইজডেন ট্রফি জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তিন ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ডকে ২-১ ব্যবধানে হারায় ক্যারিবীয়রা।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে পৌঁছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল দু’সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে থাকবে। এরপর আবারো করোনা পরীক্ষা করা হবে খেলোয়াড়দের।

দু’সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইন শেষে এমিরেটস ওল্ড ট্রাফোর্ডে বায়ো-সুরক্ষিত পরিবেশে এক সপ্তাহ অনুশীলন করবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

করোনাভাইরাসের কারনে ইংল্যান্ড সফরে দলের সাথে আসেননি ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্যারেন ব্রাভো, শিমরন হেটমায়ার ও কিমো পল। ২৫ সদস্যের দল থেকে ১৪ সদস্যের দল নিয়ে সিরিজে অংশ নিবে ক্যারিবীয়রা। ১১জনকে রির্জাভ বেঞ্চে রাখা হয়েছে।

এদিকে, ভ্রমনগত বিধি-নিষেধ থাকায় দলের সাথে যোগ দিতে পারেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং কোচ ভারতীয় মন্টি দিসাই। তাই দিসাই’র কাজটিও করবেন সাবেক অর্ন্তবর্তীকালীন কোচ ফ্লয়েড রেইফার।

হোল্ডার বলেন, ‘আমাদের প্রত্যাশা উইডজেন ট্রফি ধরে রাখা এবং এটি ধরে রাখতে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করবো।’

তবে প্রথম টেস্টে নিয়মিত অধিনায়ক জো রুটকে ছাড়াই মাঠে নামতে হবে ইংল্যান্ডকে। কারন জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে দ্বিতীয়বারের মত বাবা হবেন রুট। তার পরিবর্তে অলরাউন্ডার বেন স্টোকসকে অধিনায়কত্ব দেয়া হবে গুঞ্জন আছে।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *