জেমস এন্ডারসন ,ছবি:সংগৃহীত।

চার রান দিতে আম্পায়ারকে নিষেধ করেছিলেন বেন স্টোকস : জেমস এন্ডারসন

লন্ডন, ১৭ জুলাই ২০১৯  : বিশ্বকাপের শেষ ওভারে ‘ওভার থ্রো’ থেকে পাওয়া বাড়তি চার রান দিতে বেন স্টোকস আম্পায়ারকে নিষেধ করেছিলেন বলে দাবী তার টেস্ট সতীর্থ জেমস এন্ডারসনের।

মার্টিন গাপটিলের ছুড়ে দেয়া বলটি স্টোকসের ব্যাটে লেগে দিক পরিবর্তন করে বাউন্ডারী লাইন পেরিয়ে যায়। ফলে ইংল্যান্ড দলকে বাড়তি চার রান দেন দায়িত্বরত আম্পায়ার। যে রানের সুবাদে ম্যাচের ফলাফল পাল্টে গেছে। নিউজিল্যান্ডের পরিবর্তে শিরোপা ঘরে তুলেছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড।

আইসিসির সাবেক আম্পায়ার সিমন টাফেল বলেন, ওই সময় মাঠের আম্পায়াররা একটু ভুল করেছেন। ভুল বশত: ইংল্যান্ডকে একটি মাত্র বেশী রান দিয়ে ফেলেছেন তারা। তবে এন্ডারসন বলেন, এ সময় স্টোকস আম্পায়ারকে গিয়ে বলেছিলেন তিনি যেন ওভার থ্রো থেকে আসা পরের রান চারটি হিসেবে না ধরেন।

এন্ডারসন বলেন, স্টোকস এ সময় হাত তুলে ধরে ঘটনার জন্য ক্ষমা চাইছিলেন এবং আম্পায়ারের কাছে গিয়ে আবেদন করেছিলেন ওই রান চারটি ধর্তব্যে না আনতে। এন্ডারসন বিবিসিকে বলেন,‘ ক্রিকেটের নিয়ম অনুযায়ী স্টাম্পের দিকে যখন বল ছুড়ে মারা হয়, তখন যদি সেটি আপনার গায়ে লেগে অন্য কোন দিকে চলে যেতে থাকে, তখন আপনাকে রান নেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। তারপরও যদি বল বাউন্ডারী লাইন অতিক্রম করে, তাহলে কিছু করার নেই। খেলা শেষে মাইকেল ভনের সঙ্গে আলাপ করে আমি যা জেনেছি তা হল, স্টোকস আম্পায়ারের কাছে গিয়ে বলেছিল, আপনি এই চার রান দেবেন না। আমরা এগুলো চাই না। কিন্তু এটি নিয়মে আছে। তাই দিতে হয়েছে।’

রোববার লর্ডসের ওই ফাইনালে কিউইদের ২৪১ রানের টার্গেট অতিক্রম করার সময় ডিপ মিড উইকেট থেকে উড়ে আসা বলটি স্টোকসের ব্যাটে লেগে থার্ডম্যান অঞ্চল দিয়ে সীমানা অতিক্রম করে। এই সময় নিজের দ্বিতীয় রানটি পুরনের জন্য স্টোকস ডাইভ দিয়ে ব্যাট নিয়ে নির্ধারিত স্থানে পৌঁছাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয় রান পুর্ন হবার আগমুহুর্তেই ব্যাটে বল লেগে সেটি দিক পরিবর্তন করে।

বিষয়টি নিয়ে আরেক ফিল্ড আম্পয়ার মারিয়াস এরামাসের সঙ্গে এবং সংশ্লিষ্ট বাকী আম্পায়ারদের সঙ্গে কথা বলে ছয় রানের সংকেত দেন কর্তব্যরত আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা। ফলে যেখানে জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের শেষ ৩ বল থেকে ৯ রানের প্রয়োজন ছিল সেখানে বাকী দুই বল থেকে মাত্র তিন রানের প্রয়োজন পড়ে।

এই ঘটনাটিকে ‘ পরিস্কার ভুল’ হিসেবে অভিহিত করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক আম্পায়ার সিমন টাফেল। তিনি বলেন, ছয় রান নয়, ওই ঘটনায় ইংল্যান্ডের প্রাপ্তি ছিল ৫ রান। এটি পরিস্কার একটি ভুল। বিচারিক প্রতিবন্ধকতা।’

এদিকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) বলেছে, মাঠে আম্পায়ারদের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে তারা কোন মন্তব্য করতে চায় না।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *