মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, ছবিঃসংগৃহীত।

জেমকন খুলনার অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ

আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপ টুর্নামেন্টে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে অধিনায়ক করেছে জেমকন খুলনা।

দলে সাকিব আল হাসান থাকার পরও জেমকন খুলনার অধিনায়কত্ব পেয়েছেন মাহমুদুল্লাহ। তারা ড্রাফটে গ্রেড ‘এ’ থেকে সাকিবকে দলে নিয়েছিলো। ড্রাফটে প্রথম রাউন্ডে গ্রেড ‘এ’ থেকে মাহমুদুল্লাহকে কোন দল নেয়নি। দ্বিতীয় রাউন্ডে জেমকন খুলনা তাকে দলে নেয় এবং গ্রেড ‘এ’ থেকে দু’জন খেলোয়াড় পায় তারা।

জুয়াড়ির প্রস্তাবের তথ্য গোপন করায় সাকিব আইসিসি কর্তৃক নিষিদ্ধ হবার পর বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটের অধিনায়ক হন মাহমুদুল্লাহ।

জেমকন স্পোর্টসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর কাজি এনাম আহমেদ বলেন, ‘জেমকন খুলনার হয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপের অংশ নিতে পেরে আমরা আনন্দিত। এ বছর মাহমুদুল্লাহ ও সাকিব আল হাসানকে একত্রে দলে পেয়ে আমি উচ্ছসিত।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয় দলের টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক রিয়াদ জেমকন খুলনার নেতৃত্ব দেবেন। এর আগে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে খুলনা টাইটান্সের হয়ে তিন মৌসুমে অনেক সাফল্য পেয়েছেন তিনি। আমরা এই টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হবার লক্ষ্য নিয়ে ভালো ক্রিকেট খেলার প্রত্যাশা করছি।’

জেমকন স্পোর্টসে ফিরে আসতে পেরে উচ্ছসিত অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহ বলেন,‘গতকাল আমার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তাই মাঠে ফিরতে পেরে আমি আনন্দিত। আমি জেমকন খুলনার মালিক কাজী ইনাম আহমেদ এবং পরিচালনা দলকে আমার প্রতি বিশ্বাস রাখার জন্য এবং বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপে জেমকন খুলনার নেতৃত্ব দেয়ার জন্য তাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ টি-টুয়েন্টিতে তিন বছর ধরে খুলনা টাইটান্সের সাথে খেলার কারনে দীর্ঘদিন ধরেই জেমকনের সাথে আমার সম্পর্ক রয়েছে। তাই এটি এখন আমার হোম টিম হয়ে গেছে, তাদের সাথে থাকতে পারাটা আনন্দের।’

তিনি আরও বলেন, ‘দলের কথা বললে, আমি মনে করি আমাদের দলটি ভারসাম্যপুর্ন একটি। দারুন একটি বোলিং অ্যাটাক রয়েছে। শফিউল ইসলাম, আল-আমিন হোসেন, তরুণ হাসান মাহমুদ খুবই দক্ষ বোলার এবং গত কয়েক বছর ধরে এটিই দেখছি। আক্রমনে বৈচিত্র্য যোগ করতে আছেন সাকিব আল হাসান ও রিশাদ হোসেন। আমি মনে করি, দল হিসেবে সামনে জেমকন খুলনার দারুন সুযোগ রয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ব্যাটিং বিভাগে অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছেন, এনামুল হক, ইমরুল কায়েস, সাকিব, জহিরুল ইসলাম এবং আমি নিজে। আমরা এখনও খেলছি, এই অভিজ্ঞতা লাইনআপকে গভীরতা দিয়েছে। পাশাপাশি আরিফুল হক ও শুভাগত হোমও প্রচুর ক্রিকেট খেলেছেন। সবকিছু মিলিয়ে আমার কাছে যে দল আছে, তাতে আমি খুশী এবং আশা করি, আমরা ভালো কিছু অর্জন করতে পারবো।

জেমকন খুলনার হয়ে ভালো ক্রিকেট খেলতে আমি অধীর আগ্রহে আছি। করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই। এই টুর্নামেন্ট অবশ্যই আমাদের ক্রিকেটারদের উপকৃত করবে।’

টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় খেলায় ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের মিশন শুরু করবে জেমকন খুলনা।

জেমকন খুলনা : মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, ইমরুল কায়েস, হাসান মাহমুদ, আল-আমিন হোসেন (সিনিয়র), আনামুল হক বিজয়, শামীম পাটোয়ারী, আরিফুল হক, শফিউল ইসলাম, শুভাগত হোম, শহিদুল ইসলাম, রিশাদ হোসেন, জাকির হাসান, নাজমুল ইসলাম অপু, সালমান হোসেন ও জহিরুল ইসলাম।

Social Share

One Comments

  1. ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *