ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের ঢাকায় আগমন , ছবিঃ সংগৃহীত।

জৈব-সুরক্ষা প্রটোকলের মধ্যে ঢাকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ

করোনার মধ্যে ক্রিকেট শুরুর পর প্রথম দল হিসেবে বাংলাদেশে আসলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। ৩৮ সদস্যের একটি দল আজ সকালে ঢাকায় পৌঁছায়।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজের দলে থাকা সকলেই একত্রে এসেছেন।

এ সফরে দু’টি টেস্ট ও তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। করোনার মধ্যে এটি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ।

বাংলাদেশ সফর শুরু করার আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে করোনা আঘাত হানে। ওয়ানডে স্কোয়াডে থাকা রোমারিও শেফার্ড করোনা পজিটিভ হন। তার পরিবর্তে দলে সুযোগ পান বারবাডোজের ২৪ বছর বয়সী পেসার কিয়ন হারডিং। ১৫ সদস্যের ওয়ানডে দলে নয়জন নতুন মুখ রয়েছে।

দলের সেরা ১২জন খেলোয়াড় বাংলাদেশ সফর থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়ায় দুর্বল হয়ে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১২ জনের মধ্যে ১০জন করোনা আতঙ্কে এবারের সফরে আসতে রাজি হননি। আর দু’জন ব্যক্তিগত কারনে সফরে আসেননি।

করোনাভাইরাসের আতঙ্কে বাংলাদেশ সফর থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়া ১০ খেলোয়াড়-টেস্ট দলের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার, সীমিত ওভারের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড, টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক রোস্টন চেজ, ড্যারেন ব্রাভো, সামারাহ ব্রæকস, শেলডন কটরেল, এভিন লুইস, শাই হোপ, শিমরোন হেটমায়ার ও নিকোলাস পুরান। আর ব্যক্তিগত কারনে সফরের জন্য আগ্রহ দেখাননি ফাবিয়ান অ্যালেন ও শেন ডওরিচ।

করোনা আতঙ্কে যেকোন খেলোয়াড় আন্তর্জাতিক সফরে অনীহা থাকলে, তাতে কোন সমস্যা নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের। তাই যে দলটি বাংলাদেশে পা রাখলো, তাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্বিতীয় স্তরের দল ভাবা হচ্ছে।

করোনা পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জৈব সুরক্ষায় পবেশ করেন তারা। এরপর দ্বিতীয় পরীক্ষার আগে প্রথম তিন দিন হোটেলের রুমে আইসোলেশনে থাকবে তারা। দু’টি পরীক্ষায় নেগেটিভ হলেই সফরের চতুর্থ দিন থেকে ক্যারিবীয়রা অনুশীলনের অনুমতি পাবে বলে জানান বিসিবির কর্মকর্তারা।

২০ জানুয়ারি থেকে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে, ১৮ জানুয়ারি সাভারের বিকেএসপিতে নিজেদের মধ্যে সীমিত ওভারের প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল।

সাত দিন পর ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে তৃতীয়বারের মত করোনা পরীক্ষা দিবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সকল পরীক্ষায় উৎরে যাবার পর সপোর্ট স্টাফ ও নেট বোলার দিবে বিসিবি।

সবকিছু নিয়ন্ত্রনে রাখতে নিজেদের প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বিসিবি।

তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দলেও করোনা বিশেষজ্ঞকেও রাখা হয়েছে। করোনার কঠোর প্রটোকলে কোন প্রকার অনিয়ম হলেই যেকোনও সময় এই সফর বাতিল করার ক্ষমতা রাখেন তিনি।

২৩ জানুয়ারি তৃতীয় ওয়ানডের জন্য চট্টগ্রাম পৌঁছার পর বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়দের পরীক্ষা করা হবে। এমনকি আগামী মাসে চট্টগ্রামে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগেও ও চলাকালীন পরীক্ষা করা হবে দু’দলের।

ইতোমধ্যে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ও বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপ দু’টি টুর্নামেন্ট সাফল্যের সঙ্গে আয়োজন করেছে বাংলাদেশ।

দু’টি টুর্নামেন্ট সফলভাবে আয়োজনের অভিজ্ঞতা থেকে বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান আকরাম খান জানান, অনেক মানুষকে জৈব-সুরক্ষা পরিবেশের মধ্যে রেখে কিভাবে কাজ করতে হয় তা তারা এখন ভালোই জানে।

আজ বাসসকে আকরাম বলেন, ‘আমরা এই সিরিজকে অনেক বেশি গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করছি। আমরা যাওয়া-আসা সবকিছু তদন্ত করছি এবং এখানে কোন ফাঁক রাখছি না। জৈব-সুরক্ষা পরিবেশ কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রন করা হবে। এটির সাথে কোন আপস চলবে না।’

দেশের মাটিতে গেল ফেব্রæয়ারি-মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের পর এটিই প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ বাংলাদেশের।

আকরাম আরও বলেন, ‘আমাদের ঘরে এবং বাইরে অনেকগুলি সিরিজ আসছে। তাই ক্রিকেটের নতুন সাধারণ পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে হবে। এ ব্যাপারে ক্রিকেটাররা সচেতন।’

২০ জানুয়ারি থেকে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু করবে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয় ম্যাচ হবে ২২ জানুয়ারি। প্রথম দু’ওয়ানডে হবে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। ২৫ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে হবে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে।

দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের আগে, চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে তিনদিনের একটি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যা অনুষ্ঠিত হবে ২৯ থেকে ৩১ জানুয়ারি।

৩ ফেব্রæয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু হবে। এরপর মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে ১১ ফেব্রæয়ারি থেকে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

১৬ জানুয়ারি দেশ ছাড়ার আগে শেষবারের মত করোনা পরীক্ষায় অংশ নিবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট দল : ক্রেইগ ব্রার্থওয়েট (অধিনায়ক), জার্মেই বøাকউড (সহ-অধিনায়ক), এনক্রুমার বোনার, জন ক্যাম্পবেল, রাহকিম কর্নওয়াল, জসুয়া ডা সিলভা, শানন গ্যাব্রিয়েল, কাভেম হজ, আলজেরি জোসেফ, কাইল মায়েরস, শায়ান মোসেলে, ভেরাসামি পলমল, কেমার রোচ, রেমন রেইফার ও জোমেল ওয়ারিকেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে দল : জেসন মোহাম্মদ (অধিনায়ক), সুনীল আমব্রিস (সহ-অধিনায়ক), এনক্রুমার বোনার, জসুয়া ডা সিলভা, জাহমার হ্যামিল্টন, চেমার হোল্ডার, আকিল হোসেন, আলজেরি জোসেফ, কাইল মায়ারস, আন্দ্রে ম্যাকার্থি, জর্ন ওটলে, রোভম্যান পাওয়েল, রেমন রেইফার, কিয়ন হারডিং ও হেইডেন ওয়ালস জুনিয়র।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *