ওটিস গিবসন,ছবিঃ সংগৃহীত।

টাইগারদের বোলিং কোচের দায়িত্ব পেতে পারেন গিবসন

ঢাকা, ৬ জানুয়ারি ২০২০  : জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার বিষয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওটিস গিবসনের সঙ্গে আলোচনা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কিছু দিন আগে চার্ল ল্যাঙ্গেভেল্ট চলে যাওয়ায় ওই পদটি খালি হয়েছে।

চলমান বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে (বিবিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে ফ্র্যাঞ্চাইজি কুমিল্লা ওয়ারিয়ার্সের কোচের দায়িত্ব পালন করার জন্য বর্তমানে বাংলাদেশে অবস্থান করছেন গিবসন। তিনি নিজেও আজ বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

বিসিবি’র ভাষ্য মতে দলকে পুনর্গঠনের পরিকল্পনায় ল্যাঙ্গেভেল্টকে কোচিং স্টাফে অন্তর্ভুক্ত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দেশটির অনুরোধের কারণেই তাকে ছেড়ে দিয়েছে বিসিবি। গিবসন বলেন, ‘হ্যাঁ, আমার সঙ্গে বোর্ডের আলোচনা চলছে। চলমান এই আলোচনা আমি অস্বীকার করছি না। তবে এটি একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া।’

বিশ্ব ক্রিকেটে গিবসনের দারুণ পরিচিতি রয়েছে। বিশেষ করে প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেটের জন্য তিনি খুবই অভিজ্ঞ একজন কোচ। যিনি খেলোয়াড়ী জীবন কাটিয়েছেন কাউন্টি ক্লাব লিচেস্টারশায়ার ও স্টাফোর্ডশায়ারে।

এরপর সব ধরনের প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন গিবসন। ওয়েস্টইন্ডিজের প্রধান কোচের দায়িত্ব গ্রহণের আগে তিনি সাময়িক সময়ের জন্য ইংল্যান্ডের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১২ সালে তার তত্ত¡াবধানেই টি-২০ বিশ্বকাপের শিরোপা লাভ করেছিল ক্যারিবীয়রা।

গিবসন স্পস্ট করে বলেছেন যে, তিনি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব গ্রহনে আগ্রহী। তবে সবকিছু ঠিক থাকলেই কেবল তাকে ওই দায়িত্বে দেখা যাবে। গিবসন বলেন, ‘আমি ক্রিকেট ভালবাসি, বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করতে চাই। তরুণ পেসারদের গড়ে তোলার লক্ষ্যে আমি এই সুযোগটি গ্রহণ করতে চাই।’

কুমিল্লার দায়িত্ব পালনের সুবাদে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন পেসারের সঙ্গে তার সখ্যতা গড়ে উঠেছে।

গিবসন বলেন, ‘আমি কয়েকজন খেলোয়াড়কে চিনি। আমাদের দলের সঙ্গে (কুমিল্লা) বিবিপিএলে খেলা আল আমিনও জাতীয় দলের একজন খেলোয়াড়। সুযোগ পেলে আমি এসব বিষয়কে ইতিবাচক কাজে লাগাতে পারব।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *