বাংলাদেশ ক্রিকেট দল,ছবি: সংগৃহীত।

টি-২০ বিশ্বকাপ দল গড়তে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে নজর বিসিবির

ঢাকা, ৩০ নভেম্বর ২০১৯  : আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য টি-২০ বিশ্বকাপের দল গঠনে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ক্রিকেটারদের পারফর্মেন্সের উপর তীক্ষ্ণ নজর রাখবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

আগামী ১১ ডিসেম্বর ঢাকায় শুরু হবে বঙ্গবন্ধু বিপিএল। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপনে আয়োজিত টুর্নামেন্টটি ক্রিকেটারদের টি-২০ বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়ার মঞ্চ হিসেবেও কাজ করবে বলে জানিয়েছেন বিসিবির নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন।

ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিতে বিপিএলের আগের টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হলেও এবার বিসিবির সরাসরি তত্বাবধানে সাতটি দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে সপ্তম আসরটি। বাশার আজ সাংবাদিকদের বলেন,‘ আগামী বছর অনুষ্ঠিত হবে টি-২০ বিশ্বকাপ। এ কারণেই আমরা বঙ্গবন্ধু বিপিএলের দিকে নজর রাখছি। যাতে আমরা বিশ্বকাপের জন্য সেরা দলটি গঠন করতে পারি।

বিপিএলে তরুন খেলোয়াড়দের উপর তীক্ষè নজর রাখা হবে। বাদ যাবে না সিনিয়র খেলোয়াড়রাও। টি-২০ ক্রিকেটে ১৪০-১৫০ স্ট্রাইকের খেলোয়াড়ের ঘাটতি রয়েছে আমাদের। যে কারণে এই টুর্নামেন্টটির উপরই আমাদের বেশী মনোযোগ দিতে হবে।

সুতরাং এবারের বিপিএল আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপুর্ন। আরো খেলাসা করে বলতে গেলে, আমাদের ৫, ৬ ও ৭ নম্বর পজিশনের জন্য বিশেষজ্ঞ টি-২০ ক্রিকেটার দরকার, যারা বেশ সাবলীল স্ট্রাইক রেটের জোড়ালো ব্যাটিং দিয়ে বেশী রান আনতে পারে।’

সাব্বির রহমান ও সৌম্য সরকারের মত টি-২০ বিশেষজ্ঞ বাংলাদেশের থাকলেও তারা আসলে প্রত্যাশা পূরণ করতে পারছেন না।

এবারের বিপিএল থেকে আরো কিছু টি-২০ খেলোয়াড় পাবার ব্যাপারে আশাবাদী বাশার। তিনি বলেন,‘ প্রতিটি বিপিএলেই আমরা কিছু খেলোয়াড় পেয়েছি। আমার বিশ্বাস এবারো এর ব্যত্যয় ঘটবে না। আশা করি আমরা প্রয়োজনীয় খেলোয়াড় পাব।’

শুধু বিপিএল নয়, বাশারের মতে ইমার্জিং কাপ ও এস গেমসের মত টুর্নামেন্টকেও ভবিষ্যতের খেলোয়াড় বাছাইয়ের মঞ্চ হিসেবে মনে করছে ম্যানেজমেন্ট। নাজমুল হাসান শান্তর নেতৃত্বে এসএ গেমস খেলতে নেপাল গেছে বাংলাদেশ অনুর্ধ-২৩ পুরুষ ক্রিকেট দল। ভারত ও পাকিস্তান সেখানে ক্রিকেট দল না পাঠানোয় দলটি স্বর্নপদক নিয়ে ফিরবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এস গেমসের জন্য শক্তিাশালী দল পাঠিয়েছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চড়ানো কয়েকজন খেলোয়াড়ও নেপালগামী ওই দলে রয়েছে। বাকী ক্রিকেটাররাও জাতীয় দলের দরজায় কড়া নাড়ছে। টি-২০ ক্রিকেটকে সামনে রেখেই নেপালের এসএ গেমসে দল পাঠানো হয়েছে। যদিও ওই ম্যাচগুলো আন্তর্জাতিক ম্যাচের স্বীকৃতি পাবেনা।

জাতীয় গৌরবের বিষয় হলেও ওই আসর থেকে শুধু স্বর্ন পদকের দিকে তারা তাকিয়ে নেই বলে জানিয়েছেন বাশার। একই সঙ্গে খেলোয়াড়দের টি-২০ ক্রিকেটের সামর্থ্য যাচাই কারা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন,‘ খেলোয়াড়দের প্রতিদ্ব›িদ্বতা করার মানসিকতার জন্য প্রতিযোগিতামুলক এই টুর্নামেন্টগুলোও খুব কার্যকরী হয়। সুতরাং আমরা যখন কোন প্রতিযোগিতামুল টুর্ণামেন্টে খেলি তখন দলের স্বার্থটাও দেখি। এসএ গেমস এই কারণে গুরুত্বপূর্ণ, কারণ আমরা ওই গেমসের মাধ্যমে ছেলেদের টি-২০ সামর্থ্যও যাচাই করতে পারব।

এসএ গেমস হচ্ছে ক্রিকেটারদের জন্য নতুন অভিজ্ঞতা, কারণ তারা সাধারণত গেমসে খেলতে অভ্যস্ত নয়। কিন্তু আপনি যখন স্বর্ন পদক জয় করতে পারবেন, যখন দেখবেন আপনার পতাকা উত্তোলিত হচ্ছে, তখন দারুন শিহরণ অনুভব করবেন। ওই কারণে ছেলেরা অনুপ্রেরনা লাভ করবে। সুতরাং আপনাকে ভাল ক্রিকেট খেলতে হবে।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *