মিসবাহ-উল-হক-পিসিবি , ছবিঃসংগৃহীত।

তোপের মুখে পাকিস্তান কোচ মিসবাহ

পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের কোচ মিসবাহ-উল-হক বলেছেন নিউজিল্যান্ডে গিয়ে সিরিজ হারের পর এখন তার ভাগ্য নির্ভর করছে দেশটির কর্তৃপক্ষের হাতে। কিউই সফরে ব্যর্থতার কারণে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে ইতোমধ্যে জল্পনা কল্পনা শুরু হয়ে গেছে।

পাকিস্তান দলের কোচ হিসেবে ১৫ মাসের দায়িত্ব পালনকালে তিনটি অ্যাওয়ে টেস্ট সিরিজের সবকটিতেই পরাজিত হয়েছে পাকিস্তান। সর্বশেষ ব্যর্থতার জন্য কিউইদের করোনা আইসোলেশনের কড়াকড়িকে দায়ী করেছেন মিসবাহ। তিনি বলেন,‘ মঙ্গলবার আমি ক্রিকেট কমিটির কাছে এই বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে যাব। তারাই বোর্ডকে পরবর্তি করনীয় বিষয়ে পরামর্শ দিবে।’

টেস্টে শোচনীয় পরাজয়ের পর স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজও হেরে এসেছে পাকিস্তান। তিন ম্যাচের সিরিজটি ১-২ ব্যবধানে পরাজিত হয়ে মিসবাহ’র শিষ্যরা। তার অধীনেই এর আগে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডে টেস্ট সিরিজ হেরেছে পাকিস্তান।

৬ ক্রিকেটারের করোনা পজিটিভের মধ্যেই নিউজিল্যান্ড সফর শুরু হয় পাকিস্তানের। নিউজিল্যান্ডে পৌঁছানোর পরই তাদের দেহে ধরা পড়ে করোনাভাইরাস। ফলে হোটেলেই অবরুদ্ধ হয়ে যায় গোটা দল। পরে করোনা শৃংখলা ভাঙ্গার দায়ে সতর্কও করে দেয়া হয় পাক ক্রিকেট দলের সসদস্যদের।

মিসবাহ বলেন,‘ আমাদেরকে ঘরের মধ্যেই কাটাতে হয়েছে ১৮ থেকে ১৯দিন। এ সময় আমরা কিছুই করতে পারিনি। ঘরের মধ্যেই আমরা আবদ্ধ ছিলাম এবং সেখানেই হাটাহাটি করেছি। শুধু আমরা নই, করোনা কালে সফর করতে গিয়ে সব ক্রিকেট দলকেই সমস্যায় পড়তে হয়েছে। আপনি দেখবেন সেখানে বেশ ইনজুরি সমস্যা দেখা দিচ্ছে এবং পারফর্মেন্সের উত্থান পতন ঘটছে।’

বৃদ্ধাঙ্গুলের চোটের কারণে প্রথম টেস্টে সাইডলাইনে বসেই কাটাতে হযেছে পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজমকে। ওই টেস্টে ১০১ রানে পরাজিত হয় পাকিস্তান। দ্বিতীয় টেস্টে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের কাছে ইনিংস ও ১৭৬ রানের বিশাল ব্যবধানে হারতে হয়েছে সফরকারী পাকিস্তানকে।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *