সাকিব-রাশিদ-মাহমাদুল্লাহ

দর্শকদের জন্য খারাপ লাগছে সাকিব-রশিদ-মাহমুদুল্লাহ’র

ঢাকা, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯  : গতকাল বিকেল থেকে বেরসিক বৃষ্টির কারণে মাঠে গড়াতে পারলো না ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজের ফাইনাল। তাই ত্রিদেশীয় সিরিজের যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন হলো দুই ফাইনালিষ্ট বাংলাদেশ-আফগানিস্তান। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচটি খেলার জন্য মুখিয়ে ছিলো দু’দল। বেরসিক বৃষ্টি হতাশ করেছে দু’দলের খেলোয়াড়দের ও ক্রিকেট দর্শকদের। মাঠে এসেও খেলা দেখতে না পারায় ভক্তদের জন্য মন খারাপ হয়েছে বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, আফগানিস্তান দলপতি রশিদ খান ও টাইগারদের মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান মাহমুদুুল্লাহ রিয়াদের।

ফাইনাল ম্যাচটি পরিত্যক্ত হবার পর পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে হতাশা নিয়ে সাকিব বলেন, ‘দর্শকদের জন্য বিষয়টি খুবই হতাশার। খুব ভালো একটা ম্যাচ দেখার প্রত্যাশা নিয়ে তারা মাঠে এসেছিওলন। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে বৃষ্টির ওপর আমাদের কোনো হাত নেই।’

জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে যাত্রা শুরু করেছিলো বাংলাদেশ। কিন্তু লিগের প্রথম পর্বে আফগানিস্তানের কাছে হেরে যায় টাইগাররা। কিন্তু ফিরতে পর্বে আফগানদের হারের স্বাদ ঠিকই দেয় বাংলাদেশ। তাই লিগ পর্বে দল ভালো করেছে বলে মনে করেন সাকিব, ‘এটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ ছিল। ফাইনালে উঠে আসার পথে আমরা ভালো ক্রিকেট খেলেছি। আমার মনে হয়, ম্যাচটা না হওয়ায় দুই দলই হতাশ।’

সাকিবের মত ক্রিকেট দর্শকদের জন্য খারাপ লাগছে আফগানিস্তান অধিনায়ক রশিদেরও। তিনি বলেন, ‘এখানকার দর্শকরা অবিশ্বাস্য। মাঠে খেলার জন্য আমরা উদগ্রীব ছিলাম। কিন্তু বৃষ্টির উপর আমাদের কোনো হাত নেই। আমরা যেভাবে পারফর্ম করেছি, তা সত্যিই দারুণ ছিল। ছেলেরা ভালো খেলেছে।’

ইনজুরির কারনে ফাইনাল খেলা অনিশ্চিত ছিলো রশিদের। তবে খেলা হলে মাঠে লড়াই করতে দেখা যেত বলে জানান রশিদ, ‘অবশ্যই খেলা হলে আমি খেলতাম। গত তিন দিন ফিজিও আমাকে নিয়ে অনেক কাজ করেছে। এজন্য তাকে ধন্যবাদ। ম্যাচ খেলার জন্য আমি পুরোপুরিভাবে প্রস্তুত ছিলাম।’

ফাইনালের পুরস্কার বিতরনী শেষে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের পক্ষে এসেছিলেন মাহমুদুল্লাহ। সাকিব-রশিদের মত মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘ফাইনাল না হওয়ায় খুবই খারাপ লাগছে। গ্যালারিতে অনেক শিশু ও অনেক পরিবারকে দেখেছি। খেলার দেখার অপেক্ষায় ছিলেন তারা। ড্রেসিং রুমে বসে তাদের বৃষ্টিতে ভিজতে দেখে খারাপ লেগেছে। ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে থাকলে ভালো হতো।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *