নিউজিল্যান্ড বনাম শ্রীলংকা টি-২০ম্যাচ ,ছবিঃটুইটার।

দুর্দান্ত জয়ে টি-২০ সিরিজ শুরু করলো নিউজিল্যান্ড

পাল্লেকেলে, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  : দুর্দান্ত এক জয় দিয়ে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ শুরু করলো সফরকারী নিউজিল্যান্ড। গতরাতে সিরিজের প্রথম ম্যাচে কিউইরা ৫ উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিক শ্রীলংকাকে। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল নিউজিল্যান্ড।

পাল্লেকেলেতে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেয় শ্রীলংকা। ঝড়ো ব্যাটিং-এ ইনিংস শুরু করেন শ্রীলংকার দুই ওপেনার কুশল মেন্ডিস। অপরপ্রান্তে সতীর্থ কুশল পেরেরা ছিলেন নিষ্প্রভ। মেন্ডিসের ব্যাটিং তান্ডবে ৪ ওভারেই ৩৭ রান পেয়ে যায় শ্রীলংকা। এ সময় ১৫ বলে ২৪ রান করেন মেন্ডিজ । পেরেরার রান ছিলো ১১। পঞ্চম ওভারের তৃতীয় বলে ঐ ১১ রানেই নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টিম সাউদির শিকার হন পেরেরা। তিন নম্বরে নেমে বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হন আবিস্কা ফার্নান্দো। ১০ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি।

তবে মেন্ডিসের সাথে তৃতীয় উইকেটে দারুন ছন্দময় জুটি গড়েন নিরোশান ডিকবেলা। মারমুখি মেজাজে ৪২ বলে ৬৩ রান যোগ করেন মেন্ডিস ও ডিকবেলা। টি-২০ ক্যারিয়ারের পঞ্চম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৭৯ রানে থামেন মেন্ডিস। ফলে দলীয় ১৩১ রানে ভাঙ্গে এই জুটি। সাউদির দ্বিতীয় শিকারের আগে নিজের ৫৩ বলের ইনিংসে ৮টি চার ও ২টি ছক্কা মারেন মেন্ডিস।

মেন্ডিস ফিরে গেলে দাসুন শানাকার সাথে দলের স্কোর বড় করতে থাকেন ডিকবেলা। শেষ ওভারের তৃতীয় বলে আউট হন ডিকবেলা। এরপর ঐ ওভারের শেষ তিন বলে ২টি ছক্কায় ১৫ রান তুলে শ্রীলংকাকে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৭৪ রানের বড় সংগ্রহ এনে দেন পেসার ইসুরু উদানা। ডিকবেলা ২৫ বলে ৩৩ ও শানাকা ১২ বলে অপরাজিত ১৭ রান করেন। নিউজিল্যান্ডের সাউদি ২০ রানে ২ উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ১৭৫ রানের লক্ষ্যে অষ্টম ওভারের মধ্যে ৩৯ রানেই ৩ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। মার্টিন গাপটিল ১১, কলিন মুনরো শুন্য ও উইকেটরক্ষক টিম সেইফার্ট ১৫ রান করেন। শুরুর ধাক্কাটা পরবর্তীতে ভালোভাবে সামলে উঠেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও রস টেইলর। মারমুখী ব্যাটিং-এ শ্রীলংকার বোলারদের পাল্টা আক্রমন করেন গ্র্যান্ডহোম ও টেইলর। এমন অবস্থায় ১৩ ওভারে দলীয় ১১৩ রানের সংগ্রহ পেয়ে দারুনভাবে ম্যাচে ফিরে নিউজিল্যান্ড। ১১ থেকে ১৩, এই তিন ওভারে ৫১ রান নেন গ্র্যান্ডহোম-টেইলর জুটি।

তবে ১৪তম ওভারের তৃতীয় বলে গ্র্যান্ডহোমকে শিকার করে জুটি ভাঙ্গেন শ্রীলংকার অধিনায়ক ও পেসার লাসিথ মালিঙ্গা। এই উইকেটের মাধ্যমে টি-২০ ইতিহাসে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হয়ে যান মালিঙ্গা। এতে পেছনে পড়ে যান পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি। ৯৯ ম্যাচে ৯৮ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। মালিঙ্গার শিকার এখন ৭৪ ম্যাচে ৯৯ উইকেট।

চতুর্থ উইকেটে মাত্র ৩৮ বলে ৭৯ রান যোগ করেন গ্র্যান্ডহোম-টেইলর। এরমধ্যে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ২৮ বলে ৪৪ রান করে আউট হন গ্র্যান্ডহোম। ১৭তম ওভারের পঞ্চম বলে দলীয় ১৪৪ রানে থামতে হয় টেইলরকেও। এতে ম্যাচের লাগাম পেয়ে যায় শ্রীলংকা। কারন উইকেটে সেট হয়ে যাওয়া দুই ব্যাটসম্যানকে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে হারিয়ে বসে নিউজিল্যান্ড। জয়ের জন্য সময় ১৯ বলে ৩১ রান দরকার ছিলো নিউজিল্যান্ডের।

তবে শেষদিকে, দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুন্যে দলকে জয় উপহার দেন ড্যারিয়েল মিচেল ও মিচেল স্যান্টনার। ২টি ছক্কায় ১৯ বলে মিচেল অপরাজিত ২৫ ও স্যান্টনার ১টি ছক্কায় ৮ বলে অপরাজিত ১৪ রান করেন। ষষ্ঠ উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ১৫ বলে ৩১ রান যোগ করেন মিচেল ও স্যান্টনার। ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ২৯ বলে ৪৮ রান করে ম্যাচ সেরা হয়েছেন টেইলর।

একই ভেন্যুতে আগামীকাল অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *