তামিম ইকবাল , ছবিঃসংগৃহীত।

দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবেন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম

শ্রীলংকার সফর স্থগিত হয়ে যাওয়ায় নিজেদের মধ্যে দু’দলে ভাগ হয়ে প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ নিয়ে ব্যস্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা। ইতোমধ্যে একটি দু’দিনের প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলেছে মোমিনুল-মাহমুদুল্লাহরা। ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি করেছেন টেস্ট অধিনায়ক মোমিনুল হক

এক দিনের বিরতি দিয়ে আগামীকাল দ্বিতীয় প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে মাঠে নামছে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা। প্রথম প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে খেলতে পারেননি ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তবে দ্বিতীয় দু’দিনের প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে খেলবেন এই ড্যাশিং ওপেনার। ওটিস গিবসন একাদশের বিপক্ষে রায়ান কুক একাদশের হয়ে খেলবেন তামিম।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামীকাল সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

গত মার্চে করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন থমকে যায়। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্রথম রাউন্ডের পর বন্ধ হয় দেশের ক্রিকেটীয় কার্যক্রম।

তবে প্রায় দু’শ দিন পর নিজেদের মধ্যে ম্যাচ দিয়ে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফিরেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। শ্রীলংকা সিরিজ স্থগিত হওয়ায়, বোলিং কোচ ওটিস গিবসন ও ফিল্ডিং কোচ রায়ান গিবসনের নামে দুই দলে বিভিক্ত হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নেন তারা।

রায়ান কুক একাদশের হয়ে খেলতে নেমে সেঞ্চুরি করেন মোমিনুল। ম্যাচটি ড্র’তে শেষ হবার আগে ১১৭ রানে অপরাজিত থাকেন মোমিনুল। বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন গিবসন একাদশের পেসার ইবাদত হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ২৩০ রানের অলআউট হয় গিবসন একাদশ। দলের পক্ষে ওপেনার সাইফ হাসান ৬৫ রান করেন। সৌম্য সরকার ৫১ ও শান্ত ৪২ রান করেন।

কুক একাদশের পক্ষে তিনটি করে উইকেট নেন পেসার তাসকিন আহমেদ ও স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

মোমিনুলের সেঞ্চুরিতে কুক একাদশ ৫ উইকেটে ২৪৮ রান করে। এছাড়াও মোহাম্মদ মিঠুন ৬২ রান করেন।

প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে খেলোয়াড়দের পারফরমেন্সে সন্তুস্ট মোমিনুল। তিনি বলেন, ‘লকডাউন ও করোনার পর আমরা দীর্ঘদিন পর ম্যাচ খেলেছি। তাই কিছুটা অস্বস্তি হবে এটাই স্বাভাবিক, তারপরও সকলে ভালো খেলেছে। এটি ছিলো প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ, তবে আমি টেস্ট মেজাজে খেলার জন্য সিদ্বান্ত নিয়েছিলাম। এজন্য আমরা ক্রিজে সময় কাটানোর চেষ্টা করেছি এবং টেস্ট মেজাজে খেলার চেষ্টা করেছি।’

প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে বোলারদের পারফরমেন্স, বিশেষভাবে পেসারদের প্রচেষ্টা দেখে খুশী মোমিনুল। তিনি বলেন, ‘বোলাররা ভালো করেছে। বিশেষভাবে বোলারদের মধ্যে কোন জড়তা দেখা যায়নি। ব্যাটসম্যানরা ভালো করেছে। সবকিছু মিলিয়ে এটি ভালো ম্যাচ ছিলো।’

ওটিস গিবসন একাদশ : নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), সাইফ হাসান, ইমরুল কায়েস, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাঈম হাসান, হাসান মাহমুদ, এবাদত হোসেন চৌধুরী, মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।

রায়ান কুক একাদশ : মোমিনুল হক (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, ইয়াছির আলী চৌধুরী রাব্বি, সাদমান ইসলাম, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিথুন, নুরুল হাসান সোহান, সাইফউদ্দিন, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, খালেদ আহমেদ ও মোহাম্মদ আল-আমিন হোসেন।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *