পাকিস্তান-আফগানিস্তান-নেপাল

দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তান-আফগানিস্তান-নেপালের জয়

ঢাকা, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯  : ইমার্জিং টিমস এশিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে পাকিস্তান-আফগানিস্তান ও নেপাল। পাকিস্তান ৯০ রানে শ্রীলংকাকে, আফগানিস্তান ৯ উইকেটে ওমানকে ও নেপাল ৪০ রানে হংকং-কে হারায়।

কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে পাকিস্তানকে ব্যাটিং-এ পাঠায় শ্রীলংকা।

শ্রীলংকা বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিং-এ ১৮৩ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন অট নম্বরে নামা আহমাদ বাট। এছাড়া উইকেটরক্ষক রোহাইল নাজির ৩৭ রান করেন। শ্রীলংকার আসিথা ফার্নান্দো ৩ উইকেট নেন।

জবাবে পাকিস্তান পেসার ১৯ বছর বয়সী মোহাম্মদ হাসনাইনের বোলিং তোপে পড়ে শ্রীলংকার ব্যাটসম্যানরা। হাসনাইনের ৬ উইকেট শিকারে মাত্র ৯৩ রানেই অলআউট হয় শ্রীলংকা। ৬ উইকেট নিতে ১৯ রান খরচ করেছেন হাসনাইন। তাই ম্যাচ সেরাও তিনি। জাতীয় দলের হয়ে টি-২০তে হ্যাট্টিকও আছে হাসনাইনের। চলতি বছরে লাহোরে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-২০তে হ্যাট্টিক করেন হাসনাইন।

টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বোলারদের নৈপুন্যে জয়ের স্বাদ নেয় আফগানিস্তান। কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে ওমানের বিপক্ষে টস জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্বান্ত নেয় আফগানরাা। বাঁ-হাতি স্পিনার তারিক স্তানিকজাই’র ঘুর্ণিতে ১৫৩ রানেই অলআউট হয় ওমান। এরপর ওপেনার আব্দুল মালিকের দায়িত্ব ব্যাটিং-এ ১১৫ বল বাকী রেখেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আফগানরা। ১২টি চার ও ২টি ছক্কায় ১০২ বলে অপরাজিত ৯১ রান করেন মালিক।

এদিকে, নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেই জয়ের স্বাদ নিলো নেপাল। আগের ম্যাচে ভারতের কাছে হারের স্বাদ নিয়ে আজ হংকং-এর মুখোমুখি হয় তারা। সাভারের বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে পুরো ৫০ ওভার খেলে ২১৭ রানে অলআউট হয় নেপাল। দলের পক্ষে বড় ইনিংস খেলেন শারদ ভেসকার । তিন নম্বরে নেমে ৯টি চারে ১৩৯ বলে ৮৯ রান করেন তিনি। হংকং-এর আইজাজ খান ৪২ রানে ৩ উইকেট নেন।

জবাবে নেপালের তিন বোলারের সম্মিলিত পারফরমেন্সে ১৭৭ রানে অলআউট হয় হংকং। কিঞ্চিত শাহ’র ৫৩ ও এহসান খানের অপরাজিত ৪৪ রানেও হার এড়াতে পারেনি হংকং। নেপালের করন-বোহারা ৩টি করে ও ভারি ২টি উইকেট নেন।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *