নিজের ভবিষ্যত বোর্ডের ওপর সপে দিয়েছেন পোলার্ড

মুম্বাই, ১৩ এপ্রিল, ২০১৮ (বাসস) : ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেট খেলতে চান কাইরন পোলার্ড। তবে ৫০ ওভার ফর্মেটে বোর্ড তাকে নিয়ে কি ভাবছেন তা নিশ্চিত নন ৩০ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার।
গত বেশ কয়েক বছর যাবতই ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে চুক্তি নিয়ে ঝামেলা চলছে দেশটির খেলোয়াড়দের। যে কারণে সিরিজের মাঝ পথেই ২০১৪ সালে ভারত সফর বাতিল করেছিল ক্যারিবীয় দলটি।
তবে ক্রিস গেইল, সুনিল নারাইন এবং পোলার্ডের মতো তারকা খেলোয়াড়দের ওয়ানডে দলে ফেরানোর লক্ষ্যে দেশটির খেলোয়াড় সমিতির সঙ্গে অস্থায়ীভাবে একটি সমঝোতা করেছে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
গত মাসে ২০১৯ বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব খেলা ওয়েস্ট ইন্ডিজের (সিডবব্লিউআই) ১৫ সদস্যের দলে ছিলেন গেইল এবং মারলন স্যামুয়েলস। নারাইন, অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল পোলার্ড এবং ড্যারেন ব্রাভো এ সময় পাকিস্তান সুপার লীগ (পিএসএল) খেলেছেন বলে সিডবব্লিউআই’র পক্ষ থেকে জানানো হয়।
চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে (আইপিএল) মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলা পোলার্ড এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমার জীবন নিয়ে সত্যিই আমি সুখি।’
‘খেলার যতটুকু সুযোগ পাই তাতেই আমি খুশি। এই মুহূর্তে আমার পুরো নজর আইপিএলে এবং এরপর দুটি আন্তর্জাতিক সিরিজ রয়েছে।’
একজন টি-২০ বিশেষজ্ঞ হিসেবে পরিচিত পোলার্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে এ পর্যন্ত ১০১টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন। ২০১৬ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানের বিপক্ষে ছিলো তার শেষ ম্যাচ। জাতীয় দলের হয়ে সংখ্যাটা আরো বাড়াতে চান এ হার্ড হিটিং লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যান।
তিনি বলেন, ‘আমি এখনো ওয়েস্ট ইন্ডিজ টি-২০ দলের সদস্য।’
‘আমি এখনো ৫০ ওভারের ক্রিকেট খেলতে প্রস্তুত, তারা (বোর্ড) কি ভাবছে জানি না। তাদেরই এ প্রশ্ন করা দরকার। তবে একজন ক্রিকেটার হিসেবে জীবনে আমি সুখি। যা করছি তা নিয়ে আমি খুশি, যেখানেই খেলি না কেনো, আমি নিজের খেলাটা খেলার চেষ্টা করছি।’
ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলসে অনুষ্ঠিতব্য ২০১৯ বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ। গত মাসে জিম্বাবুয়েতে দশ দল নিয়ে অনুষ্ঠিত বাছাইপর্বে চ্যাম্পিয়ন হয় ক্যারিবীয় দলটি। রানার্স আপ হয় উপমহাদেশের দল আফগানিস্তান।
১০ দল নিয়ে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপে সরাসরি সুযোগ না পেলেও বাছাইপর্বের মাধ্যমে দল যোগ্যতা অর্জন করায় খুশি পোলার্ড।
ত্রিনিতাদিয়ান এ তরকা বলেন, ‘বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করায় দলকে অভিনন্দন। বাছাইপর্বের মাধ্যমে বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করাটা অবশ্যই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের জন্য হতাশার। তবে দল দায়িত্বটা ভালোভাবেই পালন করেছে বলে আমি মনে করি।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *