জাভেদ মিয়াঁদাদ , ছবিঃসংগৃহীত।

পাকিস্তান দলের ভবিষ্যত নিয়ে দুশ্চিন্তায় মিয়াঁদাদ

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের ভবিষ্যত নিয়ে দুশ্চিন্তায় দেশটির সাবেক অধিনায়ক জাভেদ মিয়াঁদাদ। পাকিস্তানের ভিত্তিটাই বদলে ফেলা হচ্ছে এবং দলের ভবিষ্যত কঠিন হতে যাচ্ছে বলে মনে করেন মিয়াঁদাদ।

আজ লাহোরে সাংবাদিকদের সাথে আলাপে মিয়াঁদাদ বলেন,‘পিসিবির কাজ নিয়ে মন্তব্য করতে চাই না। সময় বলে দিবে, বোর্ড ঠিক করছে কি-না। এখন আমাদের ক্রিকেট যেভাবে হচ্ছে, গত ২০ বছরে এভাবে হয়নি। সারা বিশ্বে কোথাও ক্রিকেটের ভিত্তি বদলানো হয় না, কিন্তু আমাদের ক্রিকেটের ভিত্তি বদলানো হচ্ছে। ক্রিকেটের উন্নতির জন্য সকলে সামন্য পরিবর্তন করে। কিন্তু আমাদের ক্রিকেটে যা করা হচ্ছে, সেটির ভবিষ্যত ভালো দিকে যাচ্ছে না।’

মানুষ-সমর্থকদের ভালোবাসা-সম্মানই ক্রিকেট থেকে মিয়াঁদাদের বড় আয় বলে মনে করেন। পাকিস্তানের হয়ে ১২৪টি টেস্ট ও ২৩৩টি ওয়ানডে খেলা মিয়াঁদাদ বলেন, ‘আমি সব সময় সৎ থেকেই ক্রিকেট খেলেছি। কেউ বিশ্বাস না করলে আমার কিছু যায়-আসে না। মানুষ আমাকে ভালোবাসে, সম্মান করে, ক্রিকেট থেকে আমার আয় সেটাই। প্রত্যেক খেলোয়াড়ই একেকটা বাচ্চার মতো, তাদের আমি সব সময়ই শুভকামনা জানাই। তাদের সবধরনের সহায়তায় আমি প্রস্তুত।’

পাকিস্তানের ক্রিকেট নিয়ে সবসময়ই সমালোচনায় মুখর থাকেন মিয়াঁদাদ। সম্প্রতি তারই এক সময়ের সতীর্থ ও পাকিস্তানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সমালোচনা করেন তিনি। সমালোচনার কিছুদিন পরম ত পাল্টে ইমরানের কাছে দুঃখও প্রকাশ করেন পাকিস্তান ক্রিকেটের বড়ে মিয়া খ্যাত মিয়াঁদাদ।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে রাজনীতিতে ইমরানকে চ্যালেঞ্জ করে মিয়াঁদাদা বলেছিলেন, ‘তুমি আমার অধিনায়ক ছিলে না, আমি তোমার অধিনায়ক ছিলাম। রাজনীতিতে আসার পর তোমার সাথে কথা হবে। সব জায়গায় আমি তোমার অধিনায়ক ছিলাম। তুমি আমার চাইতে সবকিছুতে কমই বুঝো। প্রধানমন্ত্রী বলে সব জানো না তুমি।’

কিছুদিন বাদে মিয়াঁদাদ আবার বলেন, ‘যদি কাউকে আঘাত করে থাকি, তাহলে নিজের আচরণের জন্য ক্ষমা চাচ্ছি। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী ইমরানের কাছে। কারণ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে পাকিস্তানের পারফরম্যান্সে ভীষণ ক্ষুব্ধ হয়েছিলাম আমি। প্রধানমন্ত্রী এবং দেশের ক্রিকেটের উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *