জনি বেয়ারস্টো ব্যাটিং , ছবিঃসংগৃহীত।

পাঞ্জাবকে উড়িয়ে দিলো হায়দারাবাদ

দুই বিদেশী অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার ও ইংল্যান্ডের জনি বেয়ারস্টোর ১৬০ রানের উদ্বোধনী জুটিতে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটের ত্রয়োদশ আসরে তৃতীয় জয় তুলে নিলো সানরাইজার্স হায়দারাবাদ। গতরাতে টুর্নামেন্টের ২২তম ম্যাচে হায়দারাবাদ ৬৯ রানে হারিয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে।

এই জয়ে ৬ খেলায় ৩ জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানে উঠলো হায়দারাবাদ। টানা চার হারে সমানসংখ্যক ম্যাচে মাত্র ২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে পাঞ্জাব।

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংএর সিদ্বান্ত নিয়ে বেয়ারস্টোকে নিয়ে ইনিংস শুরু করেন ওয়ার্নার। বেয়ারস্টো মারমুখী মেজাজে থাকলেও, ওয়ার্নার ছিলেন শান্ত মেজাজে। দু’জনে পাওয়ার প্লেতে ৫৮, ১০ ওভারে ১০০ ও ১৫ ওভারে ১৬০ রান তুলে ফেলেন।

২৮ বলে হাফ-সেঞ্চুরি করা বেয়ারস্টো ১৫ ওভার শেষে ৯৭ রানে পৌছে যান । সেঞ্চুরির স্বপ্ন দেখছিলেন তিনি। কিন্তু ১৬তম ওভারের প্রথম বলে পাঞ্জাবের স্পিনার রবি বিষনুর বলে ওয়ার্নার ও চতুর্থ বলে বিদায় হয় বেয়ারস্টোর।

ওয়ার্নার-বেয়ারস্টো ৯১ বলে ১৬০ রানের জুটি গড়েন। ৪০ বলে ৫২ রান করেন ওয়ার্র্নার। আইপিএলের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্য্যান হিসেবে ৫০তম হাফ-সেঞ্চুরি করলেন তিনি। ৪৬টি হাফ-সেঞ্চুরি ও ৪টি সেঞ্চুরি।

৫৫ বলে ৭টি চার ও ৬টি ছক্কায় ৯৭ রান করেন বেয়ারস্টো। শেষ পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসনের ১০ বলে অপরাজিত ২০ রানে ৬ উইকেটে ২০১ রানের সংগ্রহ পায় হায়দারাবাদ।

২০২ রানের বড় টার্গেটে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন পাঞ্জাবের ব্যাটসম্যানরা। নিয়মিত বিরতি দিয়ে উইকেট হারাতে থাকে তারা। তবে চার নম্বরে নামা ওয়েস্ট ইন্ডিজের নিকোলাস পুরান একেবারেই ভিন্ন মেজাজে। পাওয়ার হিটিংএ মাত্র ১৭ বলে হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন পুরান।

হাফ-সেঞ্চুরির পরও নিজের ইনিংস বড় করছিলেন পুরান। কিন্তু ৩৭ বলে ৭৭ রানে থামতে হয় তাকে। ৫টি চার ও ৭টি ছক্কায় নিজের বিধ্বংসী সাজান পুরান। তার এই ইনিংসের কারনে ১৩২ পর্যন্ত যেতে সক্ষম হয় পাঞ্জাব। হায়দারাবাদের আফগানিস্তানের স্পিনার রশিদ খান ১২ রানে ৩ উইকেট নেন।

ম্যাচ সেরা হয়েছেন হায়দারাবাদের বেয়ারস্টো।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *