রুবেল হোসেন , ছবিঃসংগৃহীত।

পেসাররা টেস্ট ক্রিকেট খেলতে অনিচ্ছুক ভুল ধারণা : রুবেল

অনেকেই মনে করে, বাংলাদেশের খেলোয়াড় টেস্ট ক্রিকেট খেলতে চায় না। কিন্তু এই চিন্তা-ভাবনার সাথে একমত নন বাংলাদেশের পেসার রুবেল হোসেন। তিনি মনে করেন, এমন অভিযোগ ভুল অনুমানের উপর করা হয়।

তিনি বলেন, টেস্ট দলে খেলার জন্য পেসাররা কঠোর পরিশ্রম করছেন, তারা বিশ্বাস করেন লংগার ভার্সনই ক্রিকেটের আসল খেলা এবং টেস্টই একজন বোলারের যোগ্যতার প্রমান দেয়।

বাসসকে রুবেল বলেন, ‘সব সময়ই আমি শুনতে পাই, আমি অন্য কিছু পেসার খেলতে টেস্ট খেলতে চায় না। যা আমাকে খুবই কষ্ট দেয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি কখনো বলিনি যে, আমার কাছে টেস্ট ক্রিকেটের আর্কষন কম। আমি টেস্ট ক্রিকেট খেলার জন্য সব সময়ই কঠোর পরিশ্রম করে থাকি। শুধুমাত্র আমি না, সকল পেসারই টেস্ট ক্রিকেটের ব্যাপারে অনেক বেশি সিরিয়াস। কারন আমরা সবাই বিশ্বাস করি, টেস্ট ক্রিকেটই হলো আসল ক্রিকেট এবং আপনি কতটা ভাল টেস্ট ক্রিকেটের পারফরমেন্স দিয়ে তার প্রমান মেলে।’

রুবেল জানেন, টেস্ট ক্রিকেটে খারাপ পারফরমেন্সের কারনে অনেকেই মনে করেন তার বড় ফরম্যাট নিয়ে অনীহা রয়েছে।

পেসারদের মধ্যে টেস্ট ক্রিকেটে রুবেলের গড় সবচেয়ে খারাপ। ২৭ ম্যাচে ৭৬ দশমিক ৭৭ গড়ে ৩৬ উইকেট শিকার আছে তার । সেই তুলনায় রুবেলের ওয়ানডে ও টি-২০ রেকর্ড বেশ ভালো।

১০১ ওয়ানডেতে ৩৪ দশমিক ১২ গড়ে ১২৬ উইকেট শিকার করেছেন রুবেল। ২৭টি টি-২০তে ৩১ দশমিক ৩৯ গড়ে ২৮ উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে, আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ও টি-২০তে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জয়ী পারফরমেন্স করেছেন রুবেল।

একই অবস্থা বাঁ-হাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানেরও। বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডে ও টি-২০তে ভালো পারফরমেন্স করেছেন তিনি।

রুবেল বলেন, ‘আমি স্বীকার করি যে, টেস্টে আমার বোলিং রেকর্ড ভালো না। তবে আমি আমার সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করছি।

কখনও আমি ভালো বল করি, কিন্তু ভাগ্য সাথে না থাকায় আমি উইকেট পাই না। বেশি উইকেট না পাবার কারনে আমার টেস্ট গড় খুবই খারাপ। কিন্তু তার মানে এই নয়, টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে আমার কোন আগ্রহ নেই। প্রতিদ্বন্দিতা বেশি থাকার পরও আমি এখনো টেস্ট ক্রিকেটের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করচ্ছি। কিন্তু একটি বিষয় বলতে পারি, আমি হাল ছাড়বো না।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘মুস্তাফিজকেও এমন কথা প্রায়ই শুনতে হয়েছিলো। কিন্তু আমি নিশ্চিত, টেস্ট ক্রিকেট পাকাপোক্ত হতে, মুস্তাফিজ তার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন। আমি তাকে চিনি, সে হাল ছেড়ে দেয়ার মত খেলোয়াড় নন। আমাদেরকে যে দোষ দেয়া হচ্ছে তা অন্যায়।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *