ছবিঃ ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ -পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯

ফাইনালে খেলার লক্ষ্য কাল মুখোমুখি ভারত-পাকিস্তানের যুবারা

পচেফস্ট্রুম, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  : অনূর্ধ্ব-১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে আগামীকাল মুখোমুখি হচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটের দুই চিরপ্রতি›দ্বন্দি ভারত ও পাকিস্তান। ছোটদের বিশ্বকাপে সপ্তমবারের মত ফাইনালে খেলার লক্ষ্য ভারতের। আর ষষ্ঠবারের মত শিরোপার লড়াইয়ে শামিল হতে চায় পাকিস্তান। পচেফস্ট্রুমে দুপুর ২টায় শুরু হবে ভারত-পাকিস্তানের মর্যাদার লড়াই।

গেল বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছিলো ভারত। অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিলো তারা। সেটি ছিলো ভারতের চতুর্থ বিশ্বকাপ জয়। পাকিস্তান বিশ্বকাপ জিতেছে দু’বার। ২০০৪ ও ২০০৬ সালে। এরপর দু’বার ফাইনালে উঠলে শিরোপা বঞ্চিত হতে হয় পাকিস্তান। সর্বশেষ ২০১৪ সালে ফাইনাল খেলেছিলো তারা।

শিরোপা ধরে রাখার মিশন নিয়ে এবারের আসরে খেলতে নামে ভারত। গ্রæপ পর্বে নিউজিল্যান্ড-শ্রীলংকা ও নেপালকে হারিয়ে কোয়ার্টারফাইনালে উঠে ভারত। ‘এ’ গ্রæপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে খেলতে নেমে শেষ আট-এ ভারত প্রতিপক্ষ হিসেবে পায় অস্ট্রেলিয়াকে। সেখানেও নিজেদের দাপট অব্যাহত রাখে ভারত। ৭৪ রানে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দেয় তারা।

অপরদিকে, ‘সি’ গ্রুপের রানার্স-আপ হতে হয় পাকিস্তান। অবশ্য গ্রæপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের সাথে পয়েন্ট সমানই ছিলো পাকিস্তানের। কিন্তু রান রেটের হিসেবে পিছিয়ে গ্রুপ রানার্স-আপ হয়ে কোয়ার্টারফাইনাল খেলতে হয় তাদের। সেখানে আফগানিস্তানকে পাত্তাই দেয়নি পাকিস্তান। ৬ উইকেটে জয় তুলে নেয় পাকিস্তান। শেষ আটের ম্যাচ জিতে সেমিফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে ভারতকে পায় পাকিস্তান। চিরপ্রতি›দ্বন্দিকে পেয়েও ভড়কে যায়নি পাকিস্তান। ভারতের ম্যাচকে সাধারন ম্যাচের মতই মনে করছে পাকিস্তান। আফগানদের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে এমনটাই বলেছিলেন পাকিস্তানের কোচ ইজাজ আহমেদ।

তবে সেমিফাইনালের আগের ভারতের বিপক্ষে ম্যাচকে বেশ গুরুত্বই দিচ্ছেন ইজাজ, ‘ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটি আমাদের কাছে ফাইনালের মত। আমি আমার দলকে বলেছি, চাপকে দূর করে স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে। ভারতের তুলনায় আমাদের দলটি বেশী ভারসাম্যপূর্ণ। আমাদের বোলিং লাইন-আপ অনেক বেশি বৈচিত্র্যপূর্ণ। তাই আমাদের লক্ষ্য শুরুতেই ভারতের টপ-অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের আউট করা।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি ভারতের সবচেয়ে বড় পরীক্ষা বলে জানান দলের অধিনায়ক প্রিয়ম গার্গ, ‘পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ মানেই বাড়তি উত্তেজনা ও চাপ। এবারের আসরে এটিই আমাদের সবচেয়ে বড় পরীক্ষা। আমরা জয়ের জন্যই মাঠে নামবো।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *