শ্রীলংকা ক্রিকেট দল ,ছবি:সংগৃহীত।

বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতে র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি ঘটাতে চায় শ্রীলংকা

কলম্বো, ২২ জুলাই, ২০১৯: নিজ মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি ঘটাতে চায় শ্রীলংকা। আগামী ২৬, ২৮ এবং ৩১ জুলাই সবক’টি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে কলম্বোর আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে।
আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে বর্তমানে সপ্তম স্থানে আছে বাংলাদেশ, অষ্টম স্থানে শ্রীলংকা।

শ্রীলংকা দল নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান অশান্থা ডি মেল বলেন, ‘এই সিরিজে আমাদের মূল লক্ষ্য হবে র‌্যাংকিংয়ে আমাদের উন্নতি ঘটানো। আমরা আছি আট নম্বরে, বাংলাদেশ সাত নম্বরে। এই মুর্হূতে আমরা যেখানে আছি সেখান থেকে এক ধাপ উন্নতি ঘটাতে হলে বাংলাদেশকে ৩-০ ব্যবধানে হারাতে হবে। এই মুহূর্তে আমাদের লক্ষ্য র‌্যাংকিংয়ে এক ধাপ অগ্রগতি।’

আসন্ন সিরিজের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘একটা সময় ছিল যখন আমরা র‌্যাংকিংয়ে পাঁচ-এর নিচে ছিলাম না। আমাদের প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত ধীরে ধীরে আমাদের অবস্থানের উন্নতি ঘটানো।

ইংল্যান্ডের মাটিতে শেষ হওয়া বিশ্বকাপে শ্রীলংকা ষষ্ঠ ও বাংলাদেশ অষ্টম স্থানে থেকে টুর্নামেন্ট শেষ করেছে। যে কারণে কোন দলই সেমিফাইনাল খেলতে পারেনি। তাই ভবিষ্যত পুনর্গঠন শুরুর জন্য আসন্ন সিরিজ দুই দলের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ।

বাংলাদেশ সিরিজের জন্য দলের ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে লংকানরা। বিশ্বকাপের দল থেকে অনেকেই বাদ পড়েছেন, সুযোগ পেয়েছেন বেশ কয়েকজন নতুন মুখ।

ক্রুটিপূর্ণ বোলিং এ্যাকশনের জন্য নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফিরেছেন স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়া।

ডি মেল বলেন, ‘যেহেতু ছাড়পত্র পেয়েছে তাই আকিলাকে আমরা নির্ভয়ে বোলিং করতে বলেছি।’

তিন ম্যাচের জন্য ভাল পিচ তৈরীর ওপড় গুরুত্ব দিয়েছেন বলেও জানান প্রধান নির্বাচক।

ডি মেল বলেন, ‘তিন ম্যাচই নতুন পিচে অনুষ্ঠিত হবে এবং উভয় দলই যাতে ভাল খেলতে পারে এবং রান করতে সক্ষম হয় সে জন্য ভাল পিচ করতে আমি কিউরেটকে নির্দেশ দিয়েছি।

বাংলাদেশ সিরিজের প্রথম ম্যাচ শেষেই এক দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার কথা রয়েছে শ্রীলংকার সেরা পেসার লাসিথ মালিঙ্গার।

ডি মেল বলেন, ‘প্রথম ম্যাচের পরই অবসর নিতে চেয়েছিলেন মালিঙ্গা। তবে যেহেতু সে উইকেট পাচ্ছে এবং বিশ্বকাপে দলের সেরা বোলার ছিলেন তাই তাকে পুরো সিরিজ খেলার পর অবসর নিতে বলেছি।’

তিনি বলেন, ‘যাই হোক মালিঙ্গা আমাদের জানিয়েছেন তার শরীর কিছুটা ক্লান্ত। তবে সে যদি প্রথম ম্যাচ শেষেই অবসর নিতে চায়, সেখানে আমাদের করার কিছু নেই। এটা তার বিষয়।’

দলের আরেক অভিজ্ঞ খেলোয়াড় অলরাউন্ডার এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজকেও শিগগিরই তার ভবিষ্যত বিষয়ে জানানো হবে।

ডি মেল বলেন, ‘দলে থাকতে হলে অবশ্যই তার ফিটনেসের উন্নতি ঘটাতে হবে এবং মাঠে রানিং বিটুইন দ্য উইকেটেও আরো ভাল করতে হবে। যদি না কেবল টেস্ট ক্রিকেট খেলে।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *