রোহিত শর্মা, ছবি: সংগৃহীত।

বাংলাদেশের সমর্থকরা দেশের প্রতি অনেক বেশি অনুগত : রোহিত

বাংলাদেশের ভক্ত-সমর্থকরা নিজ দেশের ক্রিকেটের প্রতি অনেক বেশি অনুগত বলে অভিহিত করেছেন ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মা। এছাড়াও আফসোস করে তিনি বলেন, শুধুমাত্র বাংলাদেশেই আমরা কোন সমর্থন পাই না।

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

গত ২ মে লাইভ আড্ডা শুরু করেন তামিম। তার প্রথম লাইভ আড্ডার অতিথি ছিলেন দেশের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

এরপর বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, টি-২০ দলনেতা মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং দুই পেসার তাসকিন আহমেদ-রুবেল হোসেনকে নিয়ে লাইভ আড্ডায় মাতেন তামিম।

দলের বর্তমান সতীর্থদের পর জাতীয় দলের সাবেক তিন অধিনায়ক- নাইমুর রহমান দুর্জয়, খালেদ মাহমুদ সুজন ও হাবিবুল বাশার সুমনকে লাইভ আড্ডায় আনেন তামিম।

দেশের খেলোয়াড়দের গন্ডি পেরিয়ে ১৪ মে দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ফাফ যু-প্লেসিসকে লাইভ আড্ডায় নিয়ে আসেন তামিম।

গতকাল রাতে ফেসবুক আড্ডায় তামিমের অতিথি ছিলেন রোহিত। যা আগের লাইভ আড্ডার চেয়ে অনেক বেশি সাড়া ফেলেছে।

প্রায় ৮ লাখ মানুষ এই লাইভ দেখেছেন। ৪৮ হাজারের কমেন্ট এসেছে। আট হাজার ক্রিকেটপ্রেমি আড্ডাটি শেয়ার করেছেন।

আড্ডায় রোহিত বলেন, ‘আমরা অনেক দেশে খেলেছি এবং আমরা সব জায়গায় সমর্থন পাই। কিন্তু বাংলাদেশে আমরা সমর্থন পাই না।’

দক্ষিণ আফ্রিকার ডু-প্লেসিসের পর দ্বিতীয় বিদেশী ক্রিকেট হিসেবে তামিমের লাইভ আড্ডায় আসেন রোহিত। ভারতের বিধ্বংসী ওপেনার বলেন, ‘আমরা জানি, আমরা যখন বাংলাদেশে খেলি, তখন স্টেডিয়ামে আমাদের পক্ষে ২/৩শ সমর্থক থাকে।

বাংলাদেশের সমর্থকদের সম্মলিত সাড়া থাকে। কিন্তু ২/৩শর বেশি সমর্থক পাওযা যায় না। বাংলাদেশ ভাগ্যবান, তাদের এমন সমর্থক আছে।’

তব তামিম বলেন, যেকোন মাঠে, যেকোন প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে খেলার সময় তারা সমর্থন পেয়ে থাকেন। তামিম বলেন, ‘এটি অস্বীকার করার উপায় নেই, আমরা সর্বদা আমাদের ভক্তদের সমর্থন পেয়ে থাকি। যেকোন অবস্থাতেই তারা আমাদের পাশে থাকে। বাংলাদেশ দলের জন্য আমাদের সমর্থকরা অনেক বেশি পাগল।’

আগামী শনিবার আবারো লাইভে আসবেন তামিম। এবার তার আড্ডার অতিথি টেস্ট অধিনায়ক মোমিনুল হক, ওপেনার সৌম্য সরকার ও লিটন দাস। লাইভটি শুরু হবে রাত সাড়ে ১০টায়।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *