মেহেদি হাসান মিরাজ ,ছবিঃসংগৃহীত।

বিদেশের মাটিতে সাফল্য চান মিরাজ

ঐতিহ্যগতভাবে উপমহাদেশের স্পিনারদের জন্য খুব কঠিন হলেও বিদেশের মাটিতে সাফল্য চান বাংলাদেশের অফ-স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ

নিজের অভিষেকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজে চোখ ধাঁধানো পারফরমেন্স করেছিলেন মিরাজ। কিন্তু বিদেশের মাটিতে প্রত্যাশা পুরনে ব্যর্থ তিনি। এ পর্যন্ত দেশের বাইরে মিরাজের পারফরমেন্স একেবারেই মধ্যমানের।

দেশের মাটিতে পারফরমেন্সের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছেন মিরাজ। কিন্তু বিদেশের মাটিতে পারফরমেন্স করা সব সময়ই চ্যালেঞ্জিং। তবে ব্যাটিংএ দক্ষ এ তরুণ স্পিনার বেশ ভালোভাবেই বুঝতে পারছেন যে, দেশে-বিদেশে পারফরমেন্সে ধারাবাহিকতা থাকলে, একাদশে সুযোগের নিশ্চয়তা পাবেন। বিশেষভাবে, যখন অনেক স্পিনারই জাতীয় দলে সুযোগের অপেক্ষায় আছে।

মিরাজ বলেন, ‘বিদেশের মাটিতে ভালো করা স্পিনারদের জন্য সব সময়ই চ্যালেঞ্জিং এবং আমার জন্য আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং।

আমি মনে করি, বিদেশের মাটিতে লাইন-লেন্থ ধরে রাখা উচিত। ইকোনমি রেট ভালো করতে এক জায়গায় ধারাবাহিকভাবে বল করতে হবে।’

২২ টেস্টে ৯০ উইকেট নেয়া মিরাজ আরও বলেন, ‘ আমাদেও দেশে কিংবা উপমহাদেশে স্পিনাররা যতটা সহায়তা পাবে, এশিয়ার বাইরের দেশগুলোতে তা খুবই কম। আমি আমার ত্রুটি নিয়ে কঠোর পরিশ্রম করেছি।’

মিরাজ জানান, বিদেশের মাটিতে ভালো করার জন্য বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের কিংবদন্তি স্পিনার বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি।

তিনি বলেন, ‘আমি ভেট্টোরির সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি। বিদেশের মাটিতে ভালো করার জন্য তিনি আমাকে বিশেষ কিছু পরামর্শ দিয়েছে। আমি আশা করি, যখন তার সাথে দেখা হবে, তখন তার কাছ থেকে আরও কিছু পরামর্শ পাবো।’

অতীতের মত বিশেষ করে ক্যারিয়ারের প্রথম তিন বছরের মত ভালো অবস্থায় নেই সেটা মিরাজ নিজেই বুঝতে পারছেন।তবে পুরনো অবস্থায় ফেরার আশা ছাড়ছেন না তিনি।

মিরাজ বলেন, ‘অতীতে অবস্থা ফিরিয়ে আনতে আমি সর্বাত্মক চেষষ্টা করছি। এজন্য আমি কোচদের সাথে কথা বলছি এবং কঠোর পরিশ্রম করছি। অভিষেকের পর আমি প্রথম তিন বছর খুবই ভালো করেছি। পরবর্তীতে ও লকডাউনের আগে আমার পারফরমেন্স নিয়ে উদ্বেগ তৈরি করেছে। সর্বশেষ দুই বা তিনটি সিরিজে আমি মোটেও ভালো করতে পারিনি। আমি এটি বুঝতে পেরেছি এবং অতীতের মত ভালো অবস্থায় ফিরে আসতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছি।’

খুলনার ২২ বছর বয়সী স্পিনার লক ডাউনে প্রাথমিকভাবে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে জিম ও ফিটনেস নিয়ে অনুশীলন শুরু করেছিলেন। পরবর্তীতে ঢাকার শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এসে বোলিংও শুরু করেন তিনি।

বোলিংএর এখনো পুরোপুরি ছন্দ ফিরে পাননি এবং কিছুটা অস্বস্তি বোধ করছেন বলেও উল্লেখ করেন মিরাজ।

বলেন, ‘ আমি অনেকদিন পর বোলিং করছি। এখানে প্রায় সকল ব্যাটসম্যানকেই বোলিং করেছি। কিন্তু ভালো বোলিং করতে না পারায় কিছুটা অস্বস্তিবোধ করছি। তবে আজ কিছুটা ভালো অনুভব করছি। আমার বিপক্ষে যে ব্যাটসম্যানরা খেলছে, তারাও ভালো খেলছে। তবে আমি মনে করছি, আমার আরও ভালো বল করা প্রয়োজন। আশা করছি, দ্রুতই আমি ছন্দে ফিরতে পারবো।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *