মাইকেল ক্লার্ক , ছবি: সংগৃহীত।

বুমরাহ ভারতকে বিশ্বকাপ শিরোপা এনে দিতে পারে : মাইকেল ক্লার্ক

লন্ডন, ২৫ জুন ২০১৯ : জসপ্রিত বুমরাহ’র অসাধারণ মেধা ভারতকে ফের বিশ্বকাপ শিরোপা জিতিয়ে দিতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। বিগত কয়েক বছর ধরে অধিনায়ক বিরাট কোহলির অন্যতম ভরসা হয়ে উঠেছেন তিনি।

অন্য রকমের বোলিং অ্যাকশন দিয়ে বুমরাহ অনায়াসে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যানদেরও বোকা বানিয়েছেন। সব ফর্মেটেই তিনি অনবদ্য। সর্বশেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে কঠিন পরিস্থিতিতে ভারতের জয়ে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন বুমরাহ। ক্লার্কের বিশ্বাস বোলিং দিয়ে ভারতকে বিশ্বকাপ শিরোপা জিতিয়ে দেবেন বুমরাহ।

পিটিআইকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ক্লার্ক বলেন,‘ অধিনায়ক হিসেবে সম্ভবত আপনার এমনই কাউকে (বুমরাহ) প্রয়োজন, উইকেটের প্রয়োজন হলেই যাঁর দিকে আপনি বলটা ছুঁড়ে দিতে পারেন। সে বোলিং ওপেন করতে পারে। আবার ৩৫তম ওভারেও যখন কিছু করা যাচ্ছে না কিংবা শেষের চার ওভারেও। যা ভারতকে বিশ্বকাপ জিতিয়ে দিতে পারে।’

বল হাতে বুমরাহর মেধার ফের ভুয়সি প্রশংসা করে ক্লার্ক বলেন, এমন কোন কাজ নেই যা বুমরাহ করতে পারে না। তিনি বলেন, এমন কিছু নেই যা বুমরাহ’র মধ্যে অনুপস্থিত। সে ফিট ও স্বাস্থ্যবান। আমি আশা করি, সে এমনই থাকবে এবং ভারতের হয়ে বিশ্বকাপে বড় ভূমিকা রাখবে। নতুন বলে সে সুইং ও সিম করাতে পারে। আবার যখন মাঝের ওভারে বল দিয়ে কিছুই করা যাচ্ছে না, তখন সে অতিরিক্তি গতি দিয়ে ব্যাটসম্যানকে সমস্যায় ফেলছে। ১৫০ কিমি বেগেও সে বল করতে পারে। আর ডেথ ওভারে তার মতো ইয়র্কার করতে কাউকে দেখিনি। রিভার্স সুইং হলে তো সে একজন জিনিয়াস।’

গোটা ভারতীয় দলেরই প্রশংসা করে সাবেক অসি অধিনায়ক বলেন, ‘ভারত দারুণ প্রতিভাবান দল। আমার মতে সিম বোলিং কন্ডিশনেও দুই রিস্ট স্পিনার কুলদীপ যাদব ও যুজবেন্দ্র চাহালকে খেলানোটা দারুণ সিদ্ধান্ত। এটাই আক্রমণাত্মক মনোভাব। আর এটাই সম্ভবত মিডল ওভারে ব্যবধান গড়ে দিচ্ছে।’

তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কিছুটা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারেন ২৫ বছর বয়সি বুমরাহ। বিশেষ করে ডেভিড ওয়ার্নারের কাছ থেকে। বিশ্বকাপে ৭ ম্যাচ থেকে এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৫০০ রান সংগ্রহকারী এই অসি ওপেনারের প্রশংসা করে ক্লার্ক বলেন, ‘ডেভিড যে কোনও দলেই এক্স ফ্যাক্টর হয়ে উঠতে পারে।’ ওয়ান ডে আর টি২০-র মধ্যের পার্থক্যকে মেনে নিয়ে তিনি বলেন,‘ওয়ার্নারের পক্ষে কাজটা সহজ ছিল না। ধীরে সুস্থে নিজেকে পঞ্চাশ ওভারের কাঠামোয় মানিয়ে নিয়ে ওয়ার্নার এবারের বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ স্কোরার হয়ে উঠেছেন।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *