ওয়াকার ইউনিস,ছবিঃসংগৃহীত।

বোলারদের পাশে দাঁড়ালেন ওয়াকার

করাচি, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৯  : অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পাকিস্তানের তারুণ্য নির্ভর বোলিং আক্রমণ বিভাগ ব্যর্থ হলেও বোলিং কোচ ওয়াকার ইউনিস তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। চাপে থাকা বোলারদের সমর্থনে এগিয়ে এসে ওয়াকার বলেন অভিজ্ঞতা অর্জনের সাথে সাথে তারা ভাল করবে।

অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য দলে তিন তরুণ পেসারকে অন্তর্ভুক্ত করে পাকিস্তান। তবে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে দলটির জন্য বুমেরাং। দুই টেস্টে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানরা বিশাল স্কোর গড়েছে।

তরুণ পেসাররা উইকেটও নিতে পারেনি আবার রানও আটকাতে না পারায় ব্রিসবেন ও এডিলেডে উভয় টেস্টেই ইনিংস ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে পাকিস্তান।

বোলারদের এমন হতশ্রী পারফরমেন্স দেখে অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং এটাকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে দীর্ঘ দিন পর ‘সবচেয়ে খারাপ আক্রমন’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

বোলারদের পারফরমেন্সে তিনি হতাশ স্বীকার করেন ওয়াকার।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের দেয়া এক বিবৃতিতে ওয়াকার বলেন,‘ হ্যাঁ, স্বীকার করছি তাদের কাছ থেকে আমরা যে ধরনের পারফরমেন্স বা ফল আশা করেছিলাম সেটা পাইনি। তবে টিনএজার হিসেবে আপনি টেস্ট ম্যাচে যে লাইন-লেন্থ বজায়ে রাখতে হবে তাতে ব্যর্থ হয়েছে।’

তবে সাবেক এ অধিনায়কের মতে নাসিম শাহ, মুসা খান এবং মোহাম্মদ আব্বাসের মত তরুণরা সকলেই পাকিস্তান ক্রিকেটের ভবিষ্যত সম্পদ।

ওয়াকার বলেন,‘ আমি মনে করছি তারা যদি এক বছরে আরো কিছু ম্যাচ খেলার সুযোগ পায় তবে তারা ভাল করবে এবং এর উদাহরণ শাহিন।’

প্রথম টেস্টে ১৬ বছর বয়সী নাসিম কেবলমাত্র ২০ ওভার বোলিং করেছেন ও দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ না পাওয়া এবং দিবা-রাত্রির টেস্টে অভিষেক হওয়া মুসা ভাল করতে না পরায় বোলিং কোচ হিসেবে সমালোচনার মুখে পড়েছেন ওযাকার।

পাকিস্তান দলের পরবর্তী এসাইনমেন্ট হচ্ছে নিজ মাঠে পূর্ণ শক্তির শ্রীলংকার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ।

শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজটি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের অংশ হওয়ায় ফওয়াদ আলমসহ ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল করা বেশ কয়েকজনকে দলভুক্ত করার সম্ভাবনা রয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ায় দল খারাপ করলেও কোচ মিসবাহ ও বোলিং কোচ ওয়াকারের উপড় বোর্ডের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *