ছবিঃ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে চান বিসিবি সভাপতি

সদ্যই ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। বাংলাদেশের এমন লজ্জার হারে ক্রিকেট মহল হতাশ। হতাশ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। তবে হতাশা নিয়ে বসে থাকেননি তিনি। হারের কারন খুঁজতে মাঠে নেমে পড়েছেন বিসিবি বস।দ্রুতই টেস্টে ধারাবাহিক ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে চান পাপন।

তাই গতকাল সাবেক পাঁচ অধিনায়ক এবং বর্তমান দলের তিন সিনিয়র ক্রিকেটারকে ডেকেছিলেন বিসিবি প্রধান।

সদ্য সমাপ্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ভরাডুবির কারণ খুঁজতে সাবেক পাঁচ অধিনায়ক এবং বর্তমান দলের তিন সিনিয়র ক্রিকেটারকে ডেকেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। গতকাল বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেল থেকে এই বৈঠক চলেছে রাত ৯টা পর্যন্ত ।

আজ রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে টিকা নিয়েছেন ক্রিকেটাররা, সঙ্গে ছিলেন বিসিবি সভাপতিও। এক ফাঁকে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে গতকালের বৈঠক সম্পর্কে বিস্তারিত কথা বলেছেন পাপন। দলের মধ্যে যে সমস্যা সেটা সমাধান কঠিন নয় বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

গতকাল বিকেলে বিসিবির পরিচালক ও সাবেক পাঁচ অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয়, আকরাম খান, খালেদ মাহমুদ সুজন, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, হাবিবুল বাশারের সাথে বৈঠক করেছেন পাপন। পরবর্তীতে দলের তিন সিনিয়র ক্রিকেটার তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের সাথেও বৈঠক করেছেন তিনি।

রুদ্ধদার বৈঠকে কি হয়েছে, এ বিষয়ে কেউই কোন মুখ খুলেননি। তবে আজ মুখ খুলেছেন পাপন নিজেই। আজ রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে জাতীয় দলের বেশ কিছু খেলোয়াড় করোনা ভ্যাকসিন নেন। সেখানে খেলোয়াড়দের সাথে উপস্থিত ছিলেন পাপন।

পরে সংবাদমাধ্যমকে পাপন বলেন, ‘বাংলাদেশ দলের যে খেলা আমরা দেখেছি, বিশেষ করে আফগানিস্তানের সাথে এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে সেটা বাংলাদেশ দলের খেলা মনে হয়নি। এই দলই আবার যখন ওয়ানডে বা টি-টুয়েন্টি খেলছে, সেখানে পুরোপুরি ভিন্ন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে যখন ওয়ানডে খেলছে তখন তো আমরা ভাল খেলছি। ফলে টেস্ট হলে সমস্যাটা কোথায় হয়? তাদের সাথে বৈঠকের কারন, আমি প্রত্যেকের কাছে শুনতে চেয়েছি, সমস্যাটা কোথায় বলে তারা মনে করে।’

বিসিবির পরিচালক ও সাবেক পাঁচ অধিনায়ক বা জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের সাথে কথা বলার পর পাপন বুঝতে পেরেছেন, হারের পেছনে কারন দূর করাটা কঠিন বিষয় নয়। তিনি বলেন, ‘এই সমস্যা সমাধান কঠিন কোন ব্যাপার না। এটা সহজ, কিন্তু সবাই যদি এই সমস্যাটা বুঝতে পারে এবং একসাথে সবাই স্বীকার করে, তবেই সমাধানের জন্য কাজ করা হবে। জোর করে চাপিয়ে দেয়া যাবে না। আমার ধারণা কয়েক মাসের মধ্যে সব ঠিক হয়ে যাবে।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *