ছবিঃ তামিম ইকবাল

ব্যর্থ হলে নিজ থেকেই সরে দাঁড়াবেন বললেন তামিম

মাশরাফি বিন মর্তুজা সরে দাঁড়ালে সম্প্রতি বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পান ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। তবে দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হলে নিজ থেকেই অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন বলে জানিয়েছেন তামিম।

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

নতুন দায়িত্ব পাবার পর আজ হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তামিম। তিনি বলেন, ‘সত্যি বলতে, আমি খুব অভিজ্ঞ অধিনায়ক না। আমি অনেক জায়গায় অধিনায়কত্ব করেছি। আমার প্রতি বিশ্বাস রাখতে হবে। আমাকে সময় দিতে হবে। কারণ এমন কথা আসে, সাধারণত কেউ অধিনায়কত্ব নিলে ব্যাটিং পারফরম্যান্স খারাপ হয়ে যায়। আমি নিজেও জানি না ছয় মাস পর, এক বছর পর কিভাবে পারফরম্যান্স করবো। আমাদের দর্শকদের ধৈর্য্য ধরতে হবে। দলের জন্য যা যা করা দরকার আমি তা করার চেষ্টা করবো। আমি এটা চেষ্টা করব, যত তাড়াতাড়ি সব ঠিক হয়ে যায়। যদি ছয় মাসে, এক বছরে বা দেড় বছরে কোনো কিছু ঠিক না হয় বা দলের প্রতি আমি সঠিক কিছু করতে পারছি না, তাহলে আমিই হবো প্রথম ব্যক্তি যে হাত তুলে বলব আমি ‘দুঃখিত’।’

অধিনায়ক হিসেবে মাঠের ভেতর ও বাইরের ইস্যুগুলো নিয়ে কাজ করতে চান তামিম। সবার আগে মাঠের ভেতর ও বাইরের ইস্যুগুলোর সমস্যা নিরসনে চেষ্টা করবেন তামিম। তিনি বলেন, ‘আমি যদি চিন্তা করি, কিভাবে আমি দলটাকে সামনে এগিয়ে নিব তবে আমার মাথায় প্রথম আসে মাঠের বাইরের ইস্যুগুলো। এগুলো সবার আগে ঠিক করতে হবে। আমরা আরও ভালো কিভাবে করতে পারি। আমাদের দলে এখন কোনো বড় সমস্যা বা বিশৃংখল ঘটনা ঘটে না। আমি মনে করি আমরা বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম শৃঙ্খল দল। আমরা আরও ভাল হতে পারি। এই জিনিসগুলো যদি আগে ঠিক করতে পারি, তবেই মাঠে এগুলো প্রয়োগ করতে পারলে ভালো হবে।’

ব্যাটিংএর মত অধিনায়ক হিসেবেও আক্রমণাত্মক হতে চান তামিম। তিনি বলেন, ‘মাঠের অধিনায়কত্বে আমার দর্শন হলো, আমি আক্রমণাত্মক হতে চাই। আমি আগ্রাসী থাকতেই পছন্দ করি। অনেক সময় আপনাকে পরিস্থিতি বুঝতে হবে। সবকিছু দেখেই আপনার সিদ্বান্ত নিতে হবে।’

বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি। তার উত্তরসূরী হলেন তামিম। তাই কাজটি অনেক কঠিন বলে মানছেন তামিম, ‘আমি এমন একজনের পরে দায়িত্ব পেয়েছি, যিনি অনেক সফল। যার নেতৃত্বে আমরা অনেক কিছু করেছি। আমাদের অর্জন অনেক ভারী হয়েছে। তার জায়গাটা হুট করে নিয়ে, সফল হওয়া সহজ কাজ নয়। কাজেই দায়িত্ব পেয়ে রাতারাতি মাশরাফি ভাইয়ের পর্যায়ে চলে যাওয়া হবে খুব কঠিন।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *