ইংল্যান্ড বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ , বিশ্বকাপ -২০১৯।

বড় জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড

ঢাকা, ৩০ মে ২০১৯  : দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বড় জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলো ফেবারিট স্বাগতিক ইংল্যান্ড। প্রথমে ব্যাটসম্যান ও পরে বোলারদের নৈপুণ্যে শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১০৪ রানে হারায় ইংলিশরা।

জয়ের জন্য ৩১২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকা শিবিরে প্রথম আঘাত করেন নতুন সেনশেশন জোফরা আর্চার। ব্যক্তিগত ১২ ও দলীয় ৩৬ রানে আর্চারের প্রথম শিকার হন আইডেন মার্করাম। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকলে ৩৯.৫ ওভারে ২০৭ রানে গুটিয়ে যায় প্রোটিয়ারা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৮ রান করেন কুইন্ট ডি কক। ৭৪ বল মোকাবেলায় ৬ বাউন্ডারি এব ২ ওভার বাউন্ডারিতে লিয়াম প্লানকেটের শিকার হন ডি কক। এ ছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫০ রান করেন রাসি ফন ডার ডুসেন। ৬১ বলে চার বাউন্ডারি ও এক ওভার বাউন্ডারি হাকিয়ে নতুন শেনসেশন আর্চারের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি। অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস ৫ রান করে বারবাডোজে জন্মগ্রহণকারী আর্চারের তৃতীয় শিকারে পরিণত হন। ৭ ওভার বোলিং করে ২৭ রানে মোট তিন উইকেট শিকার করেন গত মার্চে ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার যোগ্যতা অর্জন করা আর্চার। মূলত মার্করাম ও ডু ডুসেন ছাড়া আর কেউই ইংল্যান্ড বোলারদের সামনে দাঁড়াতে পারেনি। শেষ দিকে আন্দিল ফেলুকুয়াও ২৫ বলে ২৪ রান করে দলকে দুইশ রানের কোটা পার করতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। বেন স্টোকস এবং প্লানকেট ২টি করে উইকেট শিকার করেন।

এর আগে কেনিংটন ওভালে আইসিসি বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধনী ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টসের বিপরীতে প্রথমে ব্যাটিং করে চার ব্যাটসম্যানের হাফ সেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩১১ রান সংগ্রহ করে ইংল্যান্ড।

দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং

দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং

ইংল্যান্ড দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৯ রান সংগ্রহ করেন ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হওয়া মিডল অর্ডার বেটসম্যান বেন স্টোকস। এছাড়া অধিনায়ক ইয়োইন মরগান ৫৭, ওপেনার জেসন রয় ৫৪ এবং জো রুট ৫১ রান সংগ্রহ করেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ৬৬ রানের বিপরীতে সর্বাধিক ৩ উইকেট সংগ্রহ করেন লুঙ্গি এনগিডি। এছাড়া দু’টি করে উইকেট নিয়েছেন যথাক্রমে ইমরান তাহির ও কাগিসো রাবাদা। এক উইকেট নিয়েছেন আন্দিল ফেলুকুয়াও।

শুরুতেই উইকেট হারিয়ে কিছুটা থামকে যাওয়া স্বাগতিক ইংল্যান্ড বেশ দ্রুতই পরিস্থিতি সামাল দিতে সক্ষম হয়। ইমরানের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই উইকেটরক্ষক কুইন্টন ডি ককের হাতে ধরা পড়ে শূন্য রানে বিদায় নেন ওপেনার জনি বেয়ারস্টো। এ সময় দলীয় সংগ্রহশালয় যোগ হয়েছে মাত্র এক রান। ওয়ান ডাউনে জো রুট ব্যাট করতে এসে প্রাথমিক ওই বিপর্যয় সামাল দেন।

রাবাদা আউট এর পর প্লাঙ্কেটের উল্লাস

রাবাদা আউট এর পর প্লাঙ্কেটের উল্লাস

১০৬ রান যোগ করার পর এই এই জুটির পতন ঘটে। আন্দিল ফেলুকুয়াও’র বলে ডুপ্লেসিসে হাতে জেসন রয় যখন ধরা পড়েন তখন ইংল্যান্ডের সংগ্রহ শতক পেরিয়ে যায়। মাঠ ছাড়ার আগে ৫৪ রান সংগ্রহ করেন ইংলিশ ওপেনার । রয়ের বিদায়ের পর ক্রিজে আর বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি জো রুট। দলীয় সংগ্রহকে ১১১রানে রেখেই রাবাদার বলে জেপি ডুমিনির হাতে ধরা পড়ে বিদায় নেন ৫১ রান সংগ্রহকারী রুট। এরপর অধিনায়ক ইয়োইন মরগান বেন স্টোকসের সঙ্গে জুটি বদ্ধ হয়ে ফের সামাল দেন উইকেট পতন। ব্যক্তিগত ৫৭ রানে ইমরান তাহিরের শিকার হয়ে তিনি যখন সাজঘর মুখি তখন ইংলিশদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২১৭ রান। এরপর স্বাগতিক দলের হয়ে একাই লড়ে গেছেন স্টোকস। ব্যক্তিগত ৮৯ রানে লুঙ্গি এনগিডির শিকারে পরিণত হবার আগে তিনি দলকে পৌঁছে দেন ৩০০ রানে। ৭২ বল মোকাবেলায় ৯টি বাউন্ডারি হাকান স্টোকস।
৩১১ রানে থামে ইংলিশ ইনিংস।

জয়ের পর ইংল্যান্ডের উল্লাস

জয়ের পর ইংল্যান্ডের উল্লাস

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
ইংল্যান্ড : ৩১১/৮ (৫০ ওভার )
বেন স্টোকস -৮৯ (৭৯ বল )
ইয়ান মরগ্যান -৫৭ (৬০ বল )
জেসন রায় -৫৪ (৫৩ বল )
জো রুট-৫১ (৫৯ বল )
( লুঙ্গি এনগীডি -৩/৬৬ , ইমরান তাহেরি -২/৬১)

দক্ষিণ আফ্রিকা : ২০৭ /১০ (৩৯.৫ ওভার )
ডি কক- ৬৮ (৭৪ বল )
দের ডুসেন-৫০ (৬১ বল )
( আর্চার -৩/২৭ ,বেন স্টোকস -২/১২)

ফলাফল : ইংল্যান্ড ১০৪ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : বেন স্টোকস।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *