ভি ভি এস লক্ষণ ,ছবি: সংগৃহীত।

ভারতকে কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে : লক্ষণ

নয়াদিল্লি, ৩১ অক্টোবর, ২০১৯ : নিজ মাঠে সফরকারী বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজটি ভারতের জন্য কঠিন হবে মনে করছেন দেশটির সাবেক ব্যাটসম্যান ভিভিএস লক্ষণ। তার মতে স্বাগতিক দলের মিডল অর্ডারে অভিজ্ঞতার অভাব থাকায় ভারতের জন্য সিরিজটি বেশ কঠিন হবে। আগামী ৩ নভেম্বর রাজধানীর অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামের ম্যাচ দিয়ে শুরু হওয়া সিরিজে নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি বিশ্রামে থাকায় তার পরিবর্তে দলের নেতৃত্ব দেবেন তারকা ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা।

স্টার স্পোর্টস টেলিভিশনের এক অনুষ্ঠানে লক্ষণ বলেন, ‘সফরকারী বাংলাদেশ একটি শক্তিশালী দল হওয়ায় স্বাগতিকদের জন্য সিরিজটি বেশ কঠিন হবে। তবে আমি মনে করি, ভারত ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘অবশ্য রোহিত ও কেএল রাহুল এই মুহূর্তে ফর্মে আছে, শিখর ধারওয়ানও নিজকে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করছে। তাই শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ দিয়ে ভারতই সিরিজ জিতবে বলে আমি মনে করি।’

ভারতের মাটিতে টিম ইন্ডিয়াকে পরাজিত করতে শক্তিশালী ব্যাটিং সমৃদ্ধ বাংলাদেশের সামনে আসন্ন সিরিজটি সেরা সুযোগ বলেও মনে করছেন ৪৪ বছর বয়সী সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার।

লক্ষণ বলেন, ‘তাদের দলের ব্যাটিং লাইন আপ অত্যন্ত শক্তিশালী হওয়ায় ভারতের মাটিতে ভারতকে হারাতে এটাই বাংলাদেশের সেরা সুযোগ।’

তিনি আরো বলেন, ‘স্পিন বোলিংয়ের তুলনায় তাদের ফাস্ট বোলিং কিছুটা অনভিজ্ঞম হওয়ায় পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের উপর বেশি চাপ পড়বে। নতুন বলে শুরুতেই উইকেট নিতে মুস্তাফিজকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। ভারতীয় দলে কোহলি নেই এবং মিডল অর্ডারে ভারতকে কিছুটা অনভিজ্ঞ মনে হচ্ছে।’

তিন ম্যাচ সিরিজের তিন ভেন্যুতেই স্পিন সহায়ক উইকেট হওয়ায় যুজবেন্দ্রা চাহাল ও ওয়াশিংটন সুন্দর ভারতীয় বোলিং আক্রমণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলেও মন্তব্য করেন লক্ষণ।

লক্ষন বলেন, ‘ভারতীয় এই দলের বোলিং লাইনআপ খুবই অনভিজ্ঞ। সুতরায় আশা করছি চাহাল তিন ম্যাচেই খেলবে।’

দিল্লির পরে ৭ নবেম্বর রাজকোট এবং ১০ নভেম্বর নাগপুরে অনুষ্ঠিত হবে সিরিহের বাকি দুই ম্যাচ। এরপর দুই দল মুখোমুখি হবে দুই টেস্টের সিরিজে। ২২ নভেম্বর কোলকাতার ইডেন গার্ডেনে সিরিজের শেষ ও দ্বিতীয় ম্যাচটি হবে দিবা-রাত্রির।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *