মঈন খান , ছবি: সংগৃহীত।

বিশ্বকাপে ভারতকে হারানোর সক্ষমতা পাকিস্তানের আছে :মঈন

এখন পর্যন্ত কোন আসরে না পারলেও ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দী ভারতকে হারনোর সক্ষমতা সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্বাধীন বর্তমান পাকিস্তান দলের রয়েছে বলে বিশ্বাস করেন মঈন খান। ইংল্যান্ডের মাটিতে সচরাচর পাকিস্তান ভাল খেলে আসছে। তাই দলটির সাবেক অধিনায়ক মঈনের বিশ্বাস মেধা, গভীরতা এবং ভিন্নতা সম্পন্ন বর্তমন পাকিস্তান দলটি আগামী জুন মাসে ইংলিশ কন্ডিশনে ভাল করবে। তার বিশ্বাস বর্তমান বোলিং আক্রমণ এখানকার কন্ডিশন কাজে লাগাতে পারবে। বিশ্বকাপে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দী ভারত-পাকিস্তান এ পর্যন্ত মোট ছয় বার মুখোমুখি হয়েছে। তবে প্রতিবারই পরাজিত হয়েছে পাকিস্তান।

১৯৯২, ১৯৯৬, ১৯৯৯, ২০০৩, ২০১১ এবং ২০১৫ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়েছে ভারত। তবে ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ১৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে পাকিস্তান।

স্থানীয় জিটিভি নিউজ চ্যানেলকে মঈন বলেন, ‘মেধা, গভীরতা, ভিন্নতা এবং দলের সঙ্গে সরফরাজের নিবিড়ভাবে মানিয়ে নেয়ার কারণে বর্তমান দলটি বিশ্বকাপে প্রথমবার ভারতের বিপক্ষে জয়ী হয়ে রেকর্ড গড়তে পারে।’

তার এমন বিশ্বাসের ব্যাখ্যায় ৪৭ বছর বয়সী সাবেক এ উইকেটরক্ষক বলেন, ‘আমি এটা বলছি- কারণ, দুই বছর আগে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে আমাদের ছেলেরা ভারতকে হারিয়েছে এবং আমি বিশ্বাস করি জুন মাসে ইংলিশ কন্ডিশনে ভাল করার মত মানসম্মত বোলার আমাদের দলে আছে।’

বিশ্বকাপ শুরুর আগে ইংল্যান্ডের মাটিতে দলের তিন সপ্তাহব্যাপী অনুশীলন ক্যাম্প করার পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সিদ্ধান্তকেও সমর্থন করেন মঈন।

তিনি বলেন, ‘গত বেশ কয়েক বছর যাবত ইংল্যান্ডের মাটিতে ভাল করা একটি দল হচ্ছে পাকিস্তান। মে-জুন মাসে সেখানকার আবহাওয়া বিষয়ে আগাম কিছু বলা যায় না এবং পিচে ময়েশ্চার থাকবে।’

সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বর্ণবাদী মন্তব্যের দায়ে চার ওয়ানডে নিষিদ্ধ হলেও বিশ্বকাপে সরফরাজকে অধিনায়ক নিয়োগে পিসিবির সিদ্ধান্তকেও সমর্থন করেন মঈন।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *