ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিরিজ জয় , ছবি: টুইটার।

রাসেলের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে সিরিজ জিতলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ

ম্যাচ হাতে মুঠোয়ই ছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজের। তারপরও নিজের বিধ্বংসী রূপ দেখাতে কার্পন্য করেননি ক্যারিবীয় হার্ড-হিটার আন্দ্রে রাসেল। ১৪ বলে ৬টি ছক্কায় অপরাজিত ৪০ রানের ইনিংস খেলে শ্রীলংকার বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-২০ সিরিজ জয় নিশ্চিত করেন রাসেল।

গতরাতে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টি-২০ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭ উইকেটে হারায় শ্রীলংকাকে। এই জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে স্বাগতিক লংকাকে হোয়াইটওয়াশ করে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজের প্রথম ম্যাচে ২৫ রানে জিতেছিলো কাইরন পোলার্ডের দল।

পাল্লেকেলেতে টস জিতে প্রথমে বোলিং করতে নামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ব্যাট হাতে নেমে ভালো শুরু করতে পারেনি শ্রীলংকা। দলীয় ১৬ রানে প্রথম উইকেট হারায় তারা। তবে পরের দিকের ব্যাটসম্যানরাও বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হয়েছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংএ ১০৯ রানেই ৬ উইকেট হারায় শ্রীলংকা। তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে লড়াই করার পুঁজি নিয়ে শংকায় পড়ে লংকানরা।

কিন্তু সপ্তম উইকেটে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেন শ্রীলংকার দুই ব্যাটসম্যান দাসুন শানাকা ও থিসারা পেরেরা। মাত্র ২৩ বল মোকাবেলা করে অবিচ্ছিন্ন ৪৬ রান দলকে উপহার দেন শানাকা-পেরেরা। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৫৫ রানের লড়াকু পুঁজি পায় শ্রীলংকা। ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ২৪ বলে অপরাজিত ৩১ রান করেন শানাকা। ১টি করে চার-ছক্কায় ১৩ বলে অপরাজিত ২১ রান করেন পেরেরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ফ্যাবিয়ান অ্যালেন ২ উইকেট নেন।

১৫৬ রানের লক্ষ্যে শুরুটা ভালো হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজেরও। দলীয় ২৩ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরেন আগের ম্যাচে অনবদ্য হাফ-সেঞ্চুরি করা ওপেনার লেন্ডন সিমন্স। তবে শুরুর ধাক্কাটা ভালোভাবে সামাল দেন আরেক ওপেনার ব্রান্ডন কিং ও শিমরোন হেটমায়ার। কিং ছিলেন মারমুখী মেজাজে। ২১ বলে ৬টি চার ও ২টি ছক্কায় ৪৩ রান করে থামেন তিনি। দ্বিতীয় উইকেটে ২৮ বলে ৪৬ রান যোগ করেন তারা।

এরপর হেটমায়ার ও রোভম্যান পাওয়েলের ৩২ বলে ৩৪ রানের জুটিতে ম্যাচে নিয়ন্ত্রন হাতেই রাখে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৭ বলে ১৭ রান করে পাওয়েল যখন ফিরেন, তখন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দরকার ছিলো ৪৫ বলে ৫৩ রান।

এ অবস্থায় উইকেটে আসেন রাসেল। ব্যাট হাতে ছক্কার বৃষ্টি নামান তিনি। তাই ৩ ওভার বাকী রেখেই জয়ের স্বাদ নিয়ে নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চতুর্থ উইকেটে হেটমায়ারের সাথে ২৬ বলে অবিচ্ছিন্ন ৫৫ রান যোগ করেন রাসেল।

রাসেলের ৪০এর সাথে ৪২ বলে ৪৩ রানে অপরাজিত ছিলেন হেটমায়ার। তার ৪২ বলের ইনিংসে ৩টি চার ছিলো। ম্যাচ ও সিরিজ সেরা হয়েছেন রাসেল।

ওয়ানডে সিরিজে শ্রীলংকার কাছে হোয়াইটওয়াশ হলেও, টি-২০ সিরিজ দাপট দেখিয়ে জিতলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
শ্রীলংকা -১৫৫/৬ (২০ ওভার , রান রেট -৭.৭৫)
ব্যাটিং:
সানাকা -৩১*(২৪ বল , স্ট্রাইক রেট -১২৯.১৬)
ম্যাথিউস -২৩ (২২ বল , স্ট্রাইক রেট -১০৪.৫৪)
পেরেরা -২১* (১৩ বল , স্ট্রাইক রেট -১৬১.৫৩)
বোলিং :
অ্যালেন -৪-০-২৪-২
থমাস-৪-০-২৪-১

ওয়েস্ট ইন্ডিজ -১৫৮/৩ (১৭ ওভার , রান রেট-৯.২৯)
ব্যাটিং:
কিং-৪৩ (২১ বল , স্ট্রাইক রেট -২০৪.৭৬)
হেটমায়ার-৪৩* (৪২ বল , স্ট্রাইক রেট -১০২.৩৮)
রাসেল -৪০* (১৪ বল , স্ট্রাইক রেট -২৮৫.৭১)
বোলিং :
ম্যাথিউস-৪-০-২৬-১

টস: ওয়েস্ট ইন্ডিজ , ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত।
ফলাফল : ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭ উইকেটে জয়ী
ম্যাচ সেরা : আন্দ্রে রাসেল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ )

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *