ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট ম্যাচ-২০১৯

রোহিত ও সিরিজ জয়ে চোখ রেখে বিশ্বরেকর্ড গড়ার মিশন ভারতের

বিশাখাপত্তম, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ : লংগার ভার্সনে ওপেনার হিসেবে রোহিত শর্মার ফর্ম এবং নিজ মাটিতে জয়ের রেকর্ড গড়ার লক্ষ্য নিয়ে আগামী ২ অক্টোবর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু করতে ম্বাগতিক ভারত। সিরিজ শুরুর আগে আলোচনায় ভারতের ওয়ানডে ও টি-২০ ওপেনার রোহিত শর্মা। সাথে সিরিজ নিয়েও ভাবতে হচ্ছে ভারতকে। প্রথমবারের মত টেস্টে ওপেনার হিসেবে দেখা যাবে রোহিতকে। তাই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রোহিত। আর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতলেই দেশের মাটিতে টানা ১১টি সিরিজ জয়ের বিশ্বরেকর্ড গড়বে ভারত। তাই টেস্টে ওপেনার হিসেবে রোহিত কেমন করেন, সেদিকে স্পট লাইট রেখে দক্ষিণ আফ্রিকার সিরিজ জয়ের মিশন নিয়ে মাঠে নামছে ভারত। এই সিরিজ দক্ষিণ আফ্রিকার জন্যও চ্যালেঞ্জের বটে। ভারত স্পিনারদের সামলানোই প্রোটিয়াদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জের।

ক্যারিয়ারে টেস্ট খেলেছেন ২৭টি। অথচ বড় ফরম্যাটে ওপেনার হিসেবে দেখা যায়নি রোহিতকে। কিন্তু ওয়ানডে ও টি-২০ ফরম্যাটে ওপেনার হিসেবে বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন তিনি। ওয়ানডেতে ওপেনার হিসেবে দু’টি ডাবল-সেঞ্চুরি আছে রোহিতের। একটি করে আছে ভারতের শচীন টেন্ডুলকার-বিরেন্দার শেবাগ, নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইলের। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ২৬৪ রানও রোহিতের। ওয়ানডের মত টি-২০ ফরম্যাটেও উজ্জল রোহিত। টি-২০ ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ৪টি সেঞ্চুরি তার। সিমিত ওভারের ক্রিকেটে ওপেনার হিসেবে রঙ্গীন পোশাকে যেখানে উজ্জল রোহিত, সেখানে টেস্টে ওপেনার হিসেবে কেন নন তিনি!! সম্প্রতি এমন আলোচনা ভারতীয় ক্রিকেট জুড়েই।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ওপেনার হিসেবে অভিষেক হচ্ছে রোহিতের, এমন সিদ্বান্ত ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের। যে কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে রোহিতকে ওপেনার হিসেবে খেলিয়ে পরীক্ষা নিয়েছে ভারত।

কিন্তু সেই পরীক্ষায় পুরোপুরি ব্যর্থ রোহিত। ২ বল খেলে শুন্য রানে ফিরেন রোহিত। তারপরও এটিকে চিন্তার কারন হিসেবে দেখছে না ভারত। মূল লড়াইয়ে ব্যাট হাতে ওয়ানডে-টি-২০র রোহিতকেই দেখা যাবে বলে প্রত্যাশা ভারতের।

ওপেনার লোকেশ রাহুলের পরিবর্তে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে রোহিতকে দলে নেয় ভারত। রোহিত ভাল করবেন আশাবাদ ব্যক্ত করে ভারতের সহ-অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে, ‘সে অনেক পরিশ্রম করেছে এবং যদি সে সুযোগ পায় তবে আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি সে ভালো করবে। তার মান সম্পর্কে আমরা সবাই জানি জানি। এক কথায় সে বিশেষ কিছু।’

টেস্টে ওপেনার হিসেবে রোহিতকে স্বাভাবিক খেলার মধ্যে থাকতে হবে বলে মনে করেন ভারতের সাবেক মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান ভিভিএস লক্ষণ, ‘আপনি যদি আপনার স্বাভাবিক খেলা থেকে সড়ে আসেন তবে মানসিক বিশৃঙ্খলা হয়ে গেলে ভালো ফল পাওয়া যাবে না এবং ছন্দহীন হয়ে পড়বেন। আমি স্বীকার করছি, যখন ওপেন করেছিলাম আমার খেলায় প্রভাব পড়েছিলো।

রোহিত ছন্দভিত্তিক খেলোয়াড়। যদি সে ছন্দহীন হয় তবে তা কঠিন হবে।’

দেশের মাটিতে দল হিসেবে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করে চলেছে ভারত। ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে থেকে গেল বছরের অক্টোবর পর্যন্ত দশটি টেস্ট সিরিজ জিতেছে টিম ইন্ডিয়া। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে জয় পেলে টেস্ট ইতিহাসে দেশের মাটিতে এক টানা সর্বোচ্চ ১১ নিরিজ জয়ের রেকর্ড গড়বে বিরাট কোহলির দল। এ ক্ষেত্রে বর্তমানে ১০টি সিরিজ জয় করে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে রয়েছে ভারতীয়রা।

কিন্তু বিশ্বরেকর্ড গড়ার মিশনে দলের সেরা পেসার জসপ্রিত বুমরাহকে পাচ্ছে না ভারত। পিঠের ইনজুরির কারনে এই সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছেন বুমরাহ। তারপরও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ফেভারিট হিসেবে খেলতে নামছে ভারত।

অন্য দিকে গেল মাসে দুই অভিজ্ঞ খেলোয়াড় ব্যাটসম্যান হাশিম আমলা ও পেসার ডেল স্টেইনের অবসরের পর এই প্রথম টেস্ট খেলতে নামছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আমলা ৯২৮২ রান নিয়ে প্রোটিয়াদের পক্ষে টেস্টে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। আর স্টেইন ৪৩৯ উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী।

এবারের সফরে তিনজন নতুন মুখ রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার দলে। পেসার এনরিখ নির্টি, উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান রুডি সেকেন্ড এবং বাঁ-হাতি স্পিনার সেনুরান মুথুসামি।

বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশীপ টুর্নামেন্টে দক্ষিণ আফ্রিকার এটি প্রথম ম্যাচ। তাই এ ম্যাচে দল ভালো করবে বলে মনে করেন প্রস্তুতি ম্যাচে রোহিত শর্মাকে শিকার করা প্রোটিয়া পেসার ভারনন ফিলান্ডার। তিনি বলেন, ‘দলের সেরা খেলোয়াড়দের উপর স্পট লাইট থাকবে। আমাদের প্রথম কাজ হবে ভারতকে চাপে রেখে ভালো পারফরমেন্স করা।’

দক্ষিণ আফ্রিকার পেস আক্রমন বিভাগের নেতৃত্ব দিবেন কাগিসো রাবাদা। তার বোলিং নৈপুন্যে গেল বছর দেশের মাটিতে ভারতকে ২-১ ব্যবধানে হারায় প্রোটিয়ারা। আর দেশের মাটিতে ২০১৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সর্বশেষ চার ম্যাচের সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতেছিলো ভারত। একটি টেস্ট ড্র করে দক্ষিণ আফ্রিকা

ভারত দল : বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), মায়াঙ্ক আগারওয়াল, রোহিত শর্মা, সুবমান গিল, চেতেশ্বর পূজারা, আজিঙ্কা রাহানে, হনুমা বিহারি, ঋষভ পান্থ, ঋদ্ধিমান সাহা, রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, কুলদীপ যাদব, ইশান্ত শর্মা, জসপ্রিত বুমরাহ ও মোহাম্মদ শামি।

দক্ষিণ আফ্রিকা দল : ফাফ ডু-প্লেসিস (অধিনায়ক), টেম্বা বাভুমা, তিউনিস ডি ব্রুইন, কুইন্টন ডি কক, ডিন এলগার, জুবায়ের হামজা, কেশব মহারাজ, আইডেন মার্করাম, সেনুরান মুতুসামি, লুঙ্গি এনগিডি, এনরিখ নর্টি, ভারনন ফিলান্ডার, ড্যান পিট, কাগিসো রাবাদা এবং রুডি সেকেন্ড।

ফ্যাক্ট বক্স:
ভারত:
র‌্যাংকিং: এক নম্বর
অধিনায়ক: বিরাট কোহলি
কোচ: রবি শাস্ত্রি
শীর্ষ স্থানীয় ব্যাটসম্যান: বিরাট কোহলি(দ্বিতীয়)
শীর্ষ স্থানীয় বোলার: রবীন্দ্রা জাদেজা(১১তম)

দুই দলের সাম্পতিক ফর্ম:
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২৫৭ রানে জয়ী, জ্যামাইকা
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩১৮ রানে জয়ী, এন্টিগা
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে-
অস্ট্রেলিয়ার কাছে ১৩৭ রানে পরাজিত, মেলবোর্ন
অস্ট্রেলিয়ার কাছে ১৪৬ রানে পরাজিত, পার্থ
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩১ রানে জয়ী এডিলেড

দক্ষিণ আফ্রিকা:
র‌্যাংকিং: তৃতীয়
অধিনায়ক :ফাফ ডু প্লেসিস
কোচ: এনোক এনকুয়ে
শীর্ষ স্থানীয় ব্যাটসম্যা: আেিডন মার্করাম(১০ম)
শীর্ষ স্থানীয় বোলার: কাগিসো রাপবাদা(২য়)

সাম্প্রতিক ফর্ম:
শ্রীলংকার কাছে ৮ উইকেটে পরাজিত, পোর্ট এলিজাবেথ
শ্রীলংকার কাছে ১ উইকেটে পরাজিত, ডারবান
পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০৭ রানে জয়ী, জোহানেসবার্গ
পাকিস্তানের বিপক্ষে ৯ উইকেটে জয়ী কেপ টাউন
পাকিস্তানের বিপক্ষে ৫ উইকেটে জয়ী, সেঞ্চুরিয়ন

মুখোমুখি: ম্যাচ:৩৬
ভারত জয়ী: ১১
দক্ষিণ আফ্রিকা জয়ী ১৫
ড্র: ১০

সর্বশেষ তিন সিরিজ:
নিজ মাঠে ২০১৮ সালে তিন ম্যাচ সিরিজে ভারতকে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত করে দক্ষিণ আফ্রিকা
নিজ মাঠে ২০১৫ সালে চার টেস্ট সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৩-০ ব্যবধানে পরাজিত করে ভারত
নিজ মাঠে ২০১৩ সালে দুই টেস্ট সিরিজে ভারতজেক ১-০ ব্যবধানে পরাজিত করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *