ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল, ছবিঃসংগৃহীত।

শ্রীলংকা পৌঁছেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল

করোনা মহামারির সুচনা লগ্নে বাতিল হয়ে যাওয়া টেস্ট সিরিজটি খেলতে রোববার পুনরায় শ্রীলংকা পৌঁছেছে ইংল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দল। ম্যাচ খরায় কবলিত দর্শকদের জন্য এই সিরিজটি ‘ বিশাল অনুপ্রেরনা’ হতে পাওে বলে আশা করছেন কর্মকর্তারা।

ইংলিশ ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফদের নিয়ে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের চার্টার বিমানটি আজ লংকান দ্বীপ মাত্তালায় অবতরণ করেছে। সেখানেই তাদের অ্যান্টিজেন টেস্ট করানো হয়।

বানিজ্যিক বিমান চলাচলের জন্য শ্রীলংকা তাদের আকাশ সীমা বন্ধ করে দেয়ায় জো রুটের দলটি অবতরণের জন্য ওই ছোট্ট বিমান বন্দরটি পেয়েছিল। কঠোর স্বাস্থ্যবিধির অধীনে গত মে মাস থেকে আকাশসীমা বন্ধ করে দেয়ার পর কেবল মাত্র মুষ্টিমেয় প্রত্যাবাসন ফ্লাইট ও চার্টার বিমানকে অবতরণের অনুমতি দেয়া হচ্ছে শ্রীলংকায়।

ইংল্যান্ড দলের আগমনের সংবাদ সংগ্রহের জন্য হাতেগোনা কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমকে বিমান বন্দরে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছিল। অবতরণের পর জো রুট তাদের বলেন.‘ গল টেস্টের জন্য আমরা মুখিয়ে আছি।’

অবতরণের পর করোনা পরীক্ষার জন্য টার্মিনালে প্রবেশের আগে সাদা পোশাকের বিমান বন্দর কর্মীরা সফরকারী দলের সদস্যদের হাতে ও পায়ে এবং লাগেজে জীবানুনাশক ঔষধ ছিটিয়ে দেন।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ্যাশলে গাইলস বলেন, দলটি সমুদ্র তীরবর্তী গল স্টেডিয়ামে খেলার অপেক্ষায় রয়েছে।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন,‘ গল-এ খেলা সব সময়ই বিশেষ কিছু। এটি বিশ^ ক্রিকেটের আইকনিক ভেন্যুগুলোর একটি। আমাদের সবার জন্য বিগত ১০টি মাস কেটেছে অনিশ্চয়তার মধ্যে। কিন্তু শ্রীলংকায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তন গোটা বিশে^র ক্রিকেট অনুরাগীদের অনুপ্রানীত করবে।’

এই সফরে ইংল্যান্ড ক্রিকেটাররা স্থানীয়দের সঙ্গে কোন রকম সংস্পর্শে না আসলেও দুটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের অর্থ সংগ্রহের লক্ষ্যে নিলাম আয়োজনের জন্য কিছু ক্রিকেট ব্যাটে স্বাক্ষর করবেন। যৌন নিপীড়িত লংকান নারীদের সহায়তা করাই তাদের লক্ষ্য বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ দূতাবাস।

শ্রীলংকা ক্রিকেট (এসএলসি) বলেছে, কোয়ারেন্টাইন নিয়মের আলোকে দ্বীপটির দক্ষিনাঞ্চলীয় জেলা হাম্বানটোটায় স্থানীয়দের চলাফেরার উপরও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কোয়ারেন্টাইনকালীন ইংল্যান্ড দলটি নিজেদের মধ্যে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে অনুশীলন করবে। এ সময় স্থানীয়দেরকে তাদের সংস্পর্শ থেকে দূরে রাখা হবে।

এদিকে নতুন করে করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়া ইংল্যান্ড তাদের দেশে বিমান চলাচল ও মানুষের আসা যাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলেও ক্রিকেটারদের শ্রীলংকা সফরের অনুমতি দেয়া হয়। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড জানায় ,দেশ ছাড়ার আগে দলের সব সদস্যদের করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে এবং নেগেটিভ ফল পাওয়া গেছে।

করোনা মহামারি ছড়িয়ে পড়ায় ইংল্যান্ড দল মার্চে তাদের শ্রীলংকা সফর সুচি বাতিল করেছিল। নতুন সুচিতে আগামী ১৪ জানুয়ারি দর্শকশুন্য গল স্টেডিয়ামে শুরু করবে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট।

মার্চে করোনার কারণে যখন ইংল্যান্ড শ্রীলংকা সফর বাতিল করেছিল তখন দ্বীপ দেশটিতে ধরা পড়েছিল মাত্র ছয়টি কেস। কিন্তু এখন তারা যখন লংকা সফরে এলা তখন সেখানে করোনা সংক্রমেনর পরিমান দাঁড়িয়েছে ৪৪ হাজার। মারা গেছে ২১১জন।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *