মুস্তাফিজুর রহমান ,ছবি সংগৃহীত।

সব ফর্মেটের ক্রিকেট খেলতে চান মুস্তাফিজুর

লাল বলের ক্রিকেটের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ার পর ফাস্ট বোলার মুস্তাফিজুর রহমান ফের সব ফর্মেটের ক্রিকেটের জন্য নিজেকে উপযুক্ত করে গড়ে তোলার লক্ষ্য স্থির করেছেন।

বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দেয়া এই বোলার বিসিবির লাল বলের চুক্তি থেকে বাদ পড়ার অর্থ হচ্ছে টেস্ট ক্রিকেটের জন্য তাকে উপযুক্ত মনে করা হচ্ছে না।

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

কোরোনাভাইরাস প্রতিরোধ

তিনি সাদা বলের চুক্তিতে থাকলেও সেখানে তার অবস্থান ‘বি’ ক্যাটাগরির খেলোয়াড় হিসেবে, যা তার মত একজন খেলোয়াড়ের জন্য অবনমন।

তবে পুর্বের অবস্থানে নিজেকে ফিরিয়ে নিতে বদ্ধ পরিকর মুস্তাফিজ। সে লক্ষ্যে বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের অধীনে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তিনি। তার প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে ইন সুইংয়ের দক্ষতা অর্জন করা , যেটি দীর্ঘ পাঁচ বছরের ক্যারিয়ারেও ভালভাবে রপ্ত করতে পারেননি মুস্তাফিজ। যে কারণে টেস্ট ক্রিকেটে সাধারণ মানের খেলোয়াড়ের কাতারেই রয়ে গেছেন তিনি।

বুধবার মুস্তাফিজ সাংবাদিকদের বলেন,‘ আমি চাই সব ফর্মেটের ক্রিকেটে খেলতে। এটিই এই মুহুর্তে আমার প্রধান লক্ষ্য। কিছুু সাধারন বিষয় নিয়েই আমি গিবসনের সঙ্গে কাজ করেছি। তিনি আমাকে হাতের কিছু কাজ দেখিয়ে দিয়েছেন। কিভাবে বল গ্রিবে নিতে হয়, বাহু কিভাবে ডান দিকে রাখতে হয়। এগুলো খুব কঠিন নয়। আমি এসব বিষয় নিয়েই কাজ করছি।’

‘ফিজ’ নামে পরিচিত এই পেসার নিজেকে আগের ফর্মে ফিরিয়ে নিতে মুখিয়ে আছেন। তবে উইকেটের সঙ্গে মানাতে পারলে এখনো কাটার বল দিয়ে উইকেট শিকার করতে পারবেন বলে মনে করেন তিনি। বলেন,‘ সবাই এখন আমাকে জেনে গেছ।

শুরুতে আমি যখন নতুন এসেছিলাম, তারা আমার সম্পর্কে কিছুই জানতো না। ওই কারণে আমি উইকেট পাচ্ছি না। যেমনটি আগে পেয়েছি। তবে আমার কাটারে কোন পরিবর্তন হয়নি। এখনো আমি যখন নিজেদের মাঠে খেলি, আমার কাটার কাজ করে। তবে বিদেশের মাটিতে সেটি কাজ করছে না।

এই মুহুর্তে অবশ্য আমি ইয়র্কার নিয়ে আস্থা পাচ্ছি না। তবে সেটি নিখুঁত করার জন্য আমি চেস্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ইনসুইং করতে পারলে কাটার কাজ করবে। এটি আমার জন্য বেশী ভাল হবে।’

মুস্তাফিজুর আরো বলেছেন যে, অস্ত্রোপাচারের পর তার আত্মবিশ্বাসে ভাটা পড়েছে। তবে এমন পরিস্থিতি কাটিয়ে আগের অবস্থানে ফিরে যাবার ব্যাপারে আশাবাদী। তিনি বলেন,‘ আসলে অস্ত্রোপাচারের পর আমার আত্মবিশ্বাসে চীর ধরেছিল। তবে অতীতের অবস্থায় ফিরে যাবার জন্য আমি চেস্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এটি নিয়ে আমি কাজ করছি। আশা করছি সবকিছুই ঠিক হয়ে যাবে।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *