মুমিনুল হক , ছবিঃ সংগৃহীত।

সাকিবের অন্তর্ভুক্তি দলে ভারসাম্য এসেছে : মোমিনুল

সাকিব আল হাসানের সার্ভিস পাবার আশাায় দারুনভাবে রোমঞ্চিত বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক মোমিনুল হক। বলেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আসন্ন দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য গঠিত স্কোয়াডে এই তারকা অল রাউন্ডারের অন্তর্ভুক্তি একটি ভারসাম্যপুর্ন একাদশ গড়তে দারুন সহায়ক হবে।

আগামীকাল চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট। করোনার কারণে দীর্ঘ দশ মাস পর টেস্ট খেলতে নামছে বাংলাদেশ দল।২০২০ সালের ফেব্রæয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এক টেস্টের পর এই সিরিজটি হবে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে ইনিংস ও ১০৬ রানে জয়লাভ করেছিল স্বাগতিক বাংলাদেশ।

সাকিব আল হাসানের পরিবর্তিত হিসেবে বাংলাদেশ দলের টেস্ট অধিনায়ক নিযুক্ত হয়েছেন মোমিনুল। বাজিকরদের দুর্নীতির প্রস্তাব সময়মত কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে না পারার অভিযোগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল দুই বছরের জন্য সাকিব আল হাসানকে নিষিদ্ধ করার পর টেস্ট দলের দায়িত্ব পান মোমিনুল।

দলের দায়িত্ব পাবার পর থেকে সাকিবের সার্ভিস থেকে বঞ্চিত হয়েছেন মোমিনুল। যা বার বার টিম কম্বিনেশনে ব্যাঘাত ঘটিয়েছে এবং ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে অংশ নেয়া বিশ^ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের তিন ম্যাচের সবকটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হার মেনেছে টাইগাররা।

গত বছর ফেব্রæয়ারিতে একটি মাত্র টেস্টে জয়লাভ করেছিল মোমিনুল হকের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওই হোম ম্যাচটি অবশ্য টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের অন্তর্ভুক্ত ছিল না। যদিও দলনেতা নির্বাচিত হবার পর থেকে দলে সিনিয়র ক্রিকেটারদের একত্রে পাননি মোমিনুল।

প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো টেস্ট দলের পরিকল্পনায় রাখেননি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে। এমনিতেই একজন সিনিয়র ক্রিকেটারের সার্ভিস থেকে বঞ্চিত রয়েছে বাংলাদেশ। তবে সাকিবের অন্তর্ভুক্তি কিছুটা স্বস্তি ফিরিয়ে দিয়েছে মোমিনুলকে। যে দলটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আসন্ন দুই ম্যাচের সিরিজটি জয়ের জন্য মুখিয়ে আছে। যার মাধ্যমে আইসিসি বিশ^ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের পয়েন্ট তালিকায় খাতা খুলতে সক্ষম হবে টাইগাররা।

মোমিনুল বলেন,‘ তিনি এমন একজন খেলোয়াড় যিনি একের মধ্যে দুই। তিনি দলে থাকলে আমরা সব সময় বাড়তি সুযোগ লাভ করি। সেটি ব্যাটিং ও বোলিং দুই বিভাগেই। দুটি বিভাগেই তার কারণে আমরা বাড়তি একজন খেলোয়াড়ের সুবিধা ভোগ করি।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে এই অল রাউন্ডার কুচকির ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়েছিলেন।

তবে ১৮ জনের টেস্ট স্কোয়াডে তার নাম এখনো আছে। একাদশে সুযোগ পেলে ২০১৯ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের পর এটি হবে তার প্রথম টেস্ট।

প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো সাকিবের টেস্ট খেলার বিষয়ে আশাবাদী। তিনি বলেন,‘ সাকিব আমাদের জন্য একজন গুরুত্বুপর্ন খেলোয়াড়। তিনি বিশ^ মানের একজন অল রাউন্ডার যাকে যে কোন ফর্মেটের ক্রিকেটেই পরিবর্তন করা কঠিন। অবশ্য শেষ ওয়ানডে ম্যাচের ইনজুরির কারণে তাকে প্রস্তুত করা সহজ ছিল না।’

টাইগার দলের প্রধান কোচ বলেন,‘ তিনি পুনর্বাসনের মধ্যে ছিলেন। এখনো শতভাগ সুস্থতা ফিরে পাননি। তবে হাতে এখনো একদিন সময় আছে। প্রথম টেস্টের জন্য তিনি প্রস্তুত হতে পারবেন বলে আমরা কিছুটা আশাবাদী। পুনর্বাসনের সময় তিনি কঠোর পরিশ্রম করেছেন। তিনি কিছুটা বলও করেছেন। কিছুটা ব্যাটিংও। খুব বেশী অস্বস্থিবোধ করছেন না। তাই আশা করছি তিনি খেলার জন্য প্রস্তুত থাকবেন।’

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *