ভারতীয় ক্রিকেট দলের উল্লাস,ছবিঃসংগৃহীত।

সিরিজে সমতা আনলো ভারত

রবীচন্দ্রন অশ্বিনের অলরাউন্ড নৈপুন্য ও অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা অক্ষর প্যাটেলের ঘুর্ণিতে সাড়ে তিন দিনেই চেন্নাই টেস্টে ইংল্যান্ডকে ৩১৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে স্বাগতিক ভারত। রান ব্যবধানে ইংলিশদের বিপক্ষে এটিই ভারতের সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়। এই জয়ে চার ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা আনলো ভারত। সিরিজের প্রথম টেস্টে ২২৭ রানে জিতেছিলো ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ডকে ৪৮২ রানের বড় টার্গেট দিয়ে তৃতীয় দিন শেষেই জয়ের সুবাতাস পাচ্ছিলো স্বাগতিক ভারত। বড় টার্গেট তাড়া করতে নেমে দিন শেষে ৫৩ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারিয়েছিলো ইংলিশরা। ম্যাচ জিততে বাকী দু’দিনে আরও ৪২৯ রান করতে হতো ইংল্যান্ডকে। হাতে ছিলো ৭ উইকেট।

চতুর্থ দিনের সপ্তম ওভারেই ইনিংসের চতুর্থ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। ১৯ রান নিয়ে শুরু করা ড্যান লরেন্সকে ২৬ রানে থামিয়ে ভারতকে দিনের প্রথম সাফল্য এনে দেন ভারতের অশ্বিন।

এরপর অক্ষর প্যাটেল ও কুলদীপ যাদবও উইকেট শিকারের আনন্দে ভারতকে মাতিয়ে তোলেন। এমন অবস্থায় ১১৬ রানে অষ্টম উইকেট পতনে, ইংল্যান্ডের হার সময়ের ব্যাপারে হয়ে দাঁড়ায়। তবে ভারতের জয়কে দীর্ঘায়িত করেন নয় নম্বরে নামা মঈন আলী।

ভারতীয় বোলারদের সামনে বিধ্বংসী রুপ নেন মঈন। কুলদীপকে একটি চার-ছক্কায় রানের খাতা খুলেন তিনি। পরের ওভারে প্যাটেলকে পরপর তিনটি ছক্কা মারেন মঈন। মঈনের বিধ্বংসী রুপ থামাতে পারেননি অশ্বিনও। তার ওভারেও করে চার-ছক্কা আদায় করেছেন মঈন।

তবে ৫৫তম ওভারে মঈনকে থামিয়ে দেন কুলদীপ। উইকেট ছেড়ে খেলতে গিয়ে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে স্টাম্পড হন মঈন।

১৮ বলে ৩টি চার ও ৫টি ছক্কায় ৪৩ রান করেন তিনি। ইংল্যান্ড ইনিংস শেষ হয় ১৬৪ রানে । এছাড়া ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট ৩৩ ও ররি বার্নস ২৫ রান করেন।

ভারতের প্যাটেল ৬০ রানে ৫ উইকেট নেন। অশ্বিন ৩ ও কুলদীপ ২টি উইকেট নেন। ম্যাচে ১টি সেঞ্চুরিতে ব্যাট হাতে ১১৯ রান ও বল হাতে ৮ উইকেট শিকার করে ম্যাচ সেরা হয়েছেন অশ্বিন।

আগামী ২৪ ফেব্রæয়ারি থেকে আহমেদাবাদে শুরু হবে সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। ম্যাচটি দিবা-রাত্রির হবে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

ভারত : ৩২৯ ও ২৮৬, ৮৫.৫ ওভার
ব্যাটিং:
অশ্বিন- ১০৬
কোহলি- ৬২

বোলিং:
মঈন- ৪/৯৮

ইংল্যান্ড : ১৩৪ ও ১৬৪, ৫৪.২ ওভার
ব্যাটিং:
মঈন- ৪৩
রুট -৩৩

বোলিং:
প্যাটেল -৫/৬০

ফল : ভারত ৩১৭ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : রবীচন্দ্রন অশ্বিন (ভারত)।
সিরিজ : চার ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *