ফাওয়াদ আলম,ছবিঃসংগৃহীত।

১০ বছর পর টেস্ট দলে ফিরলেন ফাওয়াদ

মেলবোর্ন, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ : প্রায় ১০ বছর পর পাকিস্তান টেস্ট দলে ডাক পেলেন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান ফাওয়াদ আলম। দেশের মাটিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে আসন্ন দুই ম্যাচের টেস্টের সিরিজের জন্য আজ ১৬ সদস্যের দল ঘোষণা করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়ার সফরের দল থেকে দু’টি পরিবর্তন এনেছে পাকিস্তান। ডান-হাতি ব্যাটসম্যান ইফতেখার আহমেদ বাদ পড়েছেন। তার পরিবর্তে দলে সুযোগ পেয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী ফাওয়াদ। অস্ট্রেলিয়া সফরে চার ইনিংসে মাত্র ৪৪ রান করেছেন ইফতেখার।

অন্য পরিবর্তনে দল থেকে বাদ পড়েছেন ১৯ বছর বয়সী পেসার মোহাম্মদ মুসা। অ্যাডিলেডে দিবা-রাত্রির টেস্টে অভিষেক হয়েছিলো মুসার। ২০ ওভারে ১১৪ রান দিয়ে উইকেট শূন্য ছিলেন তিনি। তার পরিবর্তে দলে এসেছেন বাঁ-হাতি পেসার উসমান সিনওয়ারি। পাকিস্তানের হয়ে ১৭টি ওয়ানডে ও ১৬টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। তাই টেস্ট অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন তিনি।

ব্রিসবেন টেস্টে মাত্র ১৬ বছর বয়সে টেস্ট অভিষেক হয় নাসিম শাহ’র। অভিষেক টেস্টে সুবিধা করতে পারেননি তিনি। ২০ ওভারে ৬৮ রানে ১ উইকেট নেন শাহ। তারপরও শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজের জন্য দলে জায়গা ধরে রেখেছেন এই ডান-হাতি পেসার।

২০০৯ সালের নভেম্বরে টেস্ট ক্যারিয়ার শুরু করেন ফাওয়াদ। কলম্বোয় শ্রীলংকার বিপক্ষে নিজের অভিষেক টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসেই সেঞ্চুরি করে চমক দেখিয়েছিলেন তিনি। এরপর আরও দু’ম্যাচ খেলে দল থেকে ছিটকে পড়েন তিনি। তাই ৩ টেস্টে তার রান ২৫০।

তবে পরবর্তীতে ঘরোয়া আসরে পারফর্ম করে ওয়ানডে ও টি-২০ দলে সুযোগ পান ফাওয়াদ। ৩৮ ওয়ানডেতে ৯৬৬ রান ও ২৪ টি-২০তে ১৯৪ রান করেন তিনি। ২০১৫ সালে সর্বশেষ জাতীয় দলের হয়ে খেলেছিলেন ফাওয়াদ। ঢাকায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ ছিলো। এরপর থেকেই দলের বাইরে ফাওয়াদ।

তবে সম্প্রতি সময়ে কায়েদ-ই-আজম ট্রফিতে সিন্ধের হয়ে দুর্দান্ত ফর্ম প্রদর্শন করেছেন ফাওয়াদ। সর্বশেষ ছয় ইনিংস ফাওয়াদ রান করেছেন- ৯২, ১, অপরাজিত ২৯, ১০৭, ০, ৬৫, ২১১ এবং ১১৬। তাই আবারো টেস্ট দলে ডাক পেলেন ফাওয়াদ।

ফাওয়াদকে দলে নেয়ার ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক ও প্রধান কোচ মিসবাহ উল হক বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য, ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখা। যারা ধারাবাহিকভাবে ভালো করছে তাদেরকে দলে রাখা হয়েছে। ফাওয়াদ বর্তমানে ভালো করছে এবং ধারাবাহিক। এছাড়া দলের খুব বেশি পরিবর্তন করতে চাই না আমরা। যতটুকু প্রয়োজন ছিলো, ততটুকুই পরিবর্তন করা হয়েছে।’

১১ ডিসেম্বর থেকে রাওয়ালপিন্ডিতে শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট। ১৯ ডিসেম্বর করাচিতে হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

এ সিরিজ দিয়ে ২০০৯ সালের পর এই প্রথম পাকিস্তানের টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। ২০০৯ সালে করাচিতে শ্রীলংকা দলের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায় পাকিস্তানের জঙ্গিরা।

পাকিস্তান টেস্ট দল : আজহার আলী (অধিনায়ক), আবিদ আলী, আসাদ শফিক, বাবর আজম, ফাওয়াদ আলম, হারিস সোহেল, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), নাসিম শাহ, ইমাম-উল-হক, ইমরান খান, কাশিফ ভাট্টি, মোহাম্মদ আব্বাস, শাহিন শাহ আফ্রিদি, শান মাসুদ, ইয়াসির শাহ ও উসমান শিনওয়ারি।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *