নিউজিলান্ড বনাম শ্রীলংকা

৩৫ বছরের বন্ধ্যাত্ব ঘোচাতে শ্রীলংকার মাটিতে নিউজিল্যান্ড

কলম্বো, ৪ আগস্ট, ২০১৯  : সর্বশেষ ১৯৮৪ সালে শ্রীলংকার মাটিতে টেস্ট সিরিজ জিতেছিলো নিউজিল্যান্ড। এরপর ছয়বার শ্রীলংকা সফর করলেও টেস্ট সিরিজ জিততে পারেনি কিউইরা। দ্বীপ রাষ্ট্রটিতে দীর্ঘদিন সিরিজ জিততে না পারার কষ্ট মনের মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে নিউজিল্যান্ডের। মনের মধ্যে পুষে থাকা ৩৫ বছরের কষ্ট আসন্ন সিরিজে ঘোচাতে চায় দ্বাদশ বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলা নিউজিল্যান্ড। দু’টি টেস্ট ও তিনটি টি-২০ খেলতে গতকাল শ্রীলংকায় পৌছায় নিউজিল্যান্ড। এই সফরে টেস্ট সিরিজ জয়ই প্রধান লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান টম লাথাম।

১৯৮৪ সালে শ্রীলংকার মাটিতে প্রথম টেস্ট সিরিজ খেলে নিউজিল্যান্ড। প্রথম সিরিজেই বাজিমাত করে কিউইরা। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি ২-০ ব্যবধানে জিতে নেয় জিওফ হাওয়ার্থের নেতৃত্বাধীন নিউজিল্যান্ড। এরপর আরও ছয়বার শ্রীলংকা সফরে এলেও সিরিজ জয়ের স্বাদ পায়নি কিউইরা। ছয়টি সিরিজের মধ্যে তিনটিতে হারলেও, বাকী তিনটিতে ড্র করতে পারে নিউজিল্যান্ড।

তবে এবার শ্রীলংকার মাটিতে সিরিজ জিততে মরিয়া নিউজিল্যান্ড। ৩৫ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটাতে চায় তারা। শ্রীলংকার মাটিতে পা রেখেই এমনটা বলেন লাথাম। তিনি বলেন, ‘শ্রীলংকার কন্ডিশনে খেলাটা সবসময়ই কঠিন। নিজেদের কন্ডিশনে অনেক শক্তিশালী দল লংকানরা। তবে এবার আমরা বড় লক্ষ্য নিয়ে এসেছি। এবার সিরিজ জয়ই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। দীর্ঘদিন যাবত এখানে সিরিজ জিততে পারছি না আমরা। তবে সিরিজ জয়ের ভালো সুযোগ ছিলো আমাদের। তবে এসব এখন অতীত।

নতুনভাবে এবারের সফর শুরু করে শ্রীলংকার মাটিতে সিরিজ জয়ের স্বাদ নিতে চাই আমরা। কারন এখানে সিরিজ জয়ের জন্য ক্ষুর্ধাত হয়ে আছে দল।’

শ্রীলংকার মাটিতে ১৫টি টেস্ট খেলেছে নিউজিল্যান্ড। ৪টিতে জিতেছে তারা। ৬টিতে হেরেছে। সিরিজ জিততে না পারলেও, শ্রীলংকার সাথে যে প্রতিন্দ্বন্দিতা করেছে নিউজিল্যান্ড, তা বুঝাই যাচ্ছে। ২০১২ সালে সর্বশেষ সফরে দুই ম্যাচের সিরিজ ১-১ ব্যবধানে ড্র করেছে নিউজিল্যান্ড। এবার ঐ সিরিজের স্মৃতি উৎসাহ যোগাচ্ছে নিউজিল্যান্ডকে। ঐ সফরে চার জন খেলোয়াড়ের অভিজ্ঞতা এবার দলের উপকার করবে বলে মনে করেন লাথাম, ‘শ্রীলংকায় সর্বশেষ সফরে আমরা ভালো খেলেছি। দুর্দান্ত লড়াই করেছি। ঐ সফরের চারজন খেলোয়াড় এবারের দলে রয়েছে। কেন উইলিয়ামসন, রস টেইলর, টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্ট। তারা বেশ ভালোভাবেই জানে কিভাবে, কি করতে হবে। আমরাও তাদের অভিজ্ঞতাগুলো কাজে লাগানোর চেষ্টা করবো।’

বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেও আইসিসির নিয়মের মারপ্যাচে পড়ে শিরোপা হাতছাড়া করে নিউজিল্যান্ড। স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৫০ ওভারের ম্যাচে টাই করে কিউইরা। এরপর সুপার ওভারেও টাই করে তারা। কিন্তু ম্যাচে সবচেয়ে বেশি বাউন্ডারি মারার কারনে শিরোপা জিতে নেয় ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপের শিরোপা জিততে না পারার কষ্ট এখনো নিউজিল্যান্ডকে পোড়াচ্ছে বলে জানালেন লাথাম। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের ফাইনালে যেভাবে আমরা হেরেছি, তা খুবই দুঃখজনক। ঐ স্মৃতি মনে হলেই খারাপ লাগে। তবে কিছ্ইু করার নেই, ভাগ্যে যা ছিলো তাই হয়েছে। এখন নতুনভাবে সবকিছু শুরু করতে হবে আমাদের।’

গল-এ ১৪ আগস্ট থেকে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু করবে নিউজিল্যান্ড। কলম্বোয় দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট ম্যাচ হবে ২২ আগস্ট। তার আগে ৮ আগস্ট একটি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে কিউইরা। টেস্ট সিরিজ শেষে পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলবে নিউজিল্যান্ড।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *