বাংলাদেশ -এ বনাম শ্রীলংকা -এ ক্রিকেট টিম

৩৬০ রানে অলআউট বাংলাদেশ ‘এ’

হাম্বানটোটা, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯  : সফরে শ্রীলংকা ‘এ’ দলের বিপক্ষে প্রথম চার দিনের ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৩৬০ রানে অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। দ্বিতীয় দিন শেষে ৮৫ ওভারে ৬ উইকেটে ২৭০ রান করেছিলো তারা। মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুন ৯২ ও ওপেনার জহিরুল ইসলাম ৯০ রানে আউট হন। তৃতীয় দিন শেষে শ্রীলংকা ‘এ’ দল করেছে ২ উইকেটে ২০৪ রান। ফলে ৮ উইকেট হাতে নিয়ে ১৫৪ রানে পিছিয়ে শ্রীলংকা।

হাম্বানটোটায় প্রথম দিনের খেলা বৃষ্টির কারনে পরিত্যক্ত হয়। দ্বিতীয় দিন খেলতে নেমে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। উদ্বোধনী জুটিতে ৯০ রান আসলেও, ১১৬ রানে ৩ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এরপর চতুর্থ উইকেটে ১৩৭ রানের জুটি গড়েন মিঠুন ও জহিরুল। বড় জুটি গড়ার পথে সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে নাভার্স-নাইন্টিতে থামেন তারা। চার রানের ব্যবধানে বিদায় নেন তারা। এরপর দিন শেষে আর কোন বিপদ হতে দেননি সৌম্য সরকার-মেহেদি হাসান মিরাজ। সৌম্য ৮ ও মিরাজ ৭ রানে অপরাজিত ছিলেন।

তৃতীয় দিন সৌম্য ২৪ রানে আউট হলেও, হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন মিরাজ। তার ব্যাটিং দৃঢ়তায় বাংলাদেশের দলীয় স্কোর তিনশ পেরোতে পারে। ৭টি চারে ১১৪ বলে ৫৭ রান করেন মিরাজ। দলীয় ৩১৮ রানে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন মিরাজ। শেষ পর্যন্ত ১২১তম ওভারের প্রথম বলে ৩৬০ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। শ্রীলংকার আসিথা ফার্নান্দো ও রমেশ মেন্ডিস ৩টি করে উইকেট নেন।

বাংলাদেশ ইনিংস শেষে ব্যাট হাতে নেমে দলীয় ১৭ রানেই প্রথম উইকেট হারায় শ্রীলংকা। স্বাগতিকদের ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কাকে লেগ বিফোর ফাঁদে ফেলেন বাংলাদেশ ‘এ’ দলের পেসার এবাদত হোসেন। নিশাঙ্কা ১৪ রানে ফিরলে দ্বিতীয় উইকেটে বড় জুটি গড়েন সঙ্গীত কুরই ও কামিন্দু মেন্ডিস।

কুরাই সেঞ্চুরি তুলে ১০৪ রানে আউট হন। ১৫ বাউন্ডিারিতে ১৫১ বলের ইনিংস খেলে মিরাজের শিকার হন তিনি। দ্বিতীয় উইকেটে কুরাই -মেন্ডিস ১৬৫ রান যোগ করেন।

কুরাই ফিরলেও মেন্ডিস ৮টি চারে ১৪১ বলে ৭৯ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন। তার সঙ্গী অধিনায়ক আসান প্রিয়াঞ্জন অপরাজিত আছেন ৫ রানে।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *